মেইন ম্যেনু

স্ত্রী, পুত্র, কন্যাকে কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে নিজের গলা কেটে আত্মহত্যা

নিজের স্ত্রী পুত্র কন্যাকে কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে মারাত্মক জখম করার পর অবশেষে ধারালো দা দিয়ে নিজের গলা কেটে আত্মহত্যা করেছে সাহজাহান (৫০)। হৃদয় বিধারক এ ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার ভোরে নেত্রকোনা জেলার কেন্দুয়া উপজেলার গড়াডোবা ইউনিয়নের আঙ্গারোয়া গ্রামে।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, আঙ্গারোয়া গ্রামের আব্দুল লতিফের ছেলে শাহ্জাহান দীর্ঘ দিন যাবৎ মানসিক ভারসাম্যহীন থাকায় পরিবারের লোকজন তাকে লোহার শিকল দিয়ে ঘরের পালার সাথে বেঁধে রাখতেন।

শনিবার ভোরে শাহজাহান প্রকৃতির ডাকে বাইরে যেতে চাইলে তার মেয়ে হাদিসা আক্তার পিতাকে শিকলমুক্ত করে দেয়। এ সময় শাহ্জাহান হঠাৎ উত্তেজিত হয়ে ঘরে থাকা কুড়াল নিয়ে এসে স্ত্রী আসমা আক্তার (৩৮), মেয়ে নবম শ্রেণীর শিক্ষার্থী হাদিসা আক্তার (১৩) ও ছেলে আমিনুল ইসলামকে (৯) কুপিয়ে মারাত্মক জখম করে।

পরে ধারালো দা দিয়ে নিজের গলা কেটে শাহ্জাহান আত্মহত্যা করে। কেন্দুয়া থানার ওসি অভিরঞ্জন দেব ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। শাহজাহানের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।