মেইন ম্যেনু

স্ত্রী ভারত টিম সাপোর্ট করে বলে স্ত্রীকে তালাক দিলেন স্বামী

ভালবাসে বিয়া করেছিল রিপন ও টুম্পা ।ভালোই দিন কাটছিল ওদের । রিপন ও টুমপা দুই জনই ক্রিকেট খেলা পছন্দ করে ।২৪ তারিখ তারা একসাথে স্টেডিয়াম বসে খেলে দেখছে ।কিন্তু তাদের মধ্যে একটা বিষয় নিয়ে খুব জগড়া হত রিপন বাংলাদেশ সাপোট করে আর টুমপা ইন্ডিয়া ।এটা নিয়ে তাদের মধ্যে গত ২৪ তারিখ ইন্ডিয়া যেতার পর টুমপা রিপনকে অনেক রকম ব্যাঙ্গ করে ।রিপন শুদু একটা কথা বলে তুমি ইন্ডিয়া কর ভালো কিন্তু যখন বাংলাদেশের খেলা হবে তখন তোমাকে বাংলাদেশ সাপোর্ট করতে হবে ।টুম্পা কোন ভাবে মানতে রাজি নয় ।

একসময়ে তাঁদের মধ্যে অনেক বড় রকম সমস্যা হয় । যাই হোক একপযায়ে তারা দুজন থেমে যায়। কিন্তু রিপন বলে যদি বাংলাদেশ ফাইনাল খেলে তাহলে তোমার বাংলাদেশ সাপোট করতেই হবে ।তখন টুম্পা কোন কথা বলে না ।

বাংলাদেশ ইন্ডিয়া খেলার জন্য রিপন টিকিট পাইনি ।সারা রাত দারিয়ে ছিল কিন্তু টিকিট পাইনি একটা ও । রিপন এর মন অনেক খারাপ সে বাংলাদেশের খেলা দেখতে পারবেনা ।দুই দিন অফিসে যায় না। আজকে বিকালে রিপন টুম্পাকে বলল তুমি আজ কোন দল ।টুম্পা বলল আমার দল একটাই তা হল ইন্ডিয়া ।রিপন এর অনেক রাগ হয় ও টুম্পার ভোটার আইডি কার্ড ছিরে ফেলে।রিপন বলে তুই ইন্ডিয়া চলে যা তোর বাংলাদেশে থাকার কোন অধিকার নাই। যারা দেশকে ভালোবাসে না তাঁদের জন্মে দোষ আছে ।এই কথা বলাতে টুম্পা অনেক রাগ করে তুমুল কাণ্ড শুরু করে। রিপন ও খুব রকম রেগে যায় ও একসময়ে রিপন বলে তোকে নিয়ে আমি আর পারছি না তুই চলে যা ।যে আমার কথা শুনে না তার সাথে আমি আর থাকতে পারবনা তোকে আমি তালাক দিব ।আমি আর পারছি না এই বলে রিপন টুম্পাকে তালাক দিয়ে দিল ।

এবার আপনারা বলেন রিপন ঠিক না টুম্পা ঠিক। দেশ প্রেম থেকে বলছি রিপন ঠিক ।কিন্তু তালাক দেয়া ঠিক হয়নি।
ঘটনাটা আমদের এক সংবাদ কর্মীর বাসার পাশে হয়েছে ।রিপনের অনুরোধে বাসার ঠিকানা দেয়া হয়নি।