মেইন ম্যেনু

৫১ কেন্দ্রের প্রিজাইডিং কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে মামলার নির্দেশ

প্রথম ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগে ভোটগ্রহণ স্থগিতের ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে মামলার দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। বৃহস্পতিবার ইসির উপসচিব মো. সামসূল আলম স্বাক্ষরিত নির্দেশনাটি ৫১ জন সংশ্লিষ্ট প্রিজাইডিং কর্মকর্তা বরাবর পাঠানো হয়েছে।

ভোটগ্রহণ স্থগিতের ঘটনায় মামলা দায়ের নির্দেশনা সংক্রান্ত চিঠিতে বলা হয়েছে, প্রত্যেক কেন্দ্রের প্রিজাইডিং কর্মকর্তা জ্ঞাত বা অজ্ঞাত যাই হোক না কেন, জড়িত সকল ব্যক্তিকে আসামি করে থানা মামলা রুজু করতে নির্বাচন কমিশন নির্দেশনা প্রদান করেছে।

এ বিষয়ে রাতে সামসূল আলম জানান, বিভিন্ন অনিয়মের কারণে প্রথম দফা নির্বাচনে ৬৫টি ভোটকেন্দ্রের ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে। এর মধ্যে সাতক্ষীরা জেলায় ১৪টি কেন্দ্র রয়েছে। ওই সব কেন্দ্রের ১১টিতে পুলিশের গাফলতি থাকায় দায়িত্বরত পুলিশ কর্মকর্তাকে সাময়িক বরখাস্তের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। তিনটি কেন্দ্রে পুলিশ অনিয়মকারীদের বিরুদ্ধে অ্যাকশনে গিয়েছিল। এ ঘটনায় সাতক্ষীরার পুলিশ সুপার এবং পাঁচ থানার ওসিকে কমিশনে হাজির হয়ে আগামী মাসের প্রথম সপ্তাহে ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়েছে।

এজহারে চারটি তথ্য সন্নিবেশিত করার কথা বলা হয়েছে। সেগুলো হচ্ছে ঘটনাস্থল, ঘটনার সময়, ঘটনার বিবরণী ও ঘটনার জন্য দায়ি ব্যক্তি/ব্যক্তিবর্গ। সংশ্লিষ্ট সকল জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা, উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা, রিটার্নিং কর্মকর্তা ও প্রিজাইডিং কর্মকর্তা বরাবর পাঠানো ইসির নির্দেশনা অনুযায়ী দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করে নির্বাচন কমিশনকে জানাতে বলা হয়েছে।

যেসব ইউপিতে মামলা করতে বলা হয়েছে সেগুলো হলো খুলনার দিঘলিয়া উপজেলার যোগীপল ইউপির দুটি, পিরোজপুরের কাউখালী উপজেলার সয়না রঘুনাথপুরের দুটি, শিয়ালকাঠির একটি, চিরাপাড়া-পারসাতুরিয়ার একটি, মঠবাড়িয়া উপজেলার ধানী সাফার একটি, দাউদখালীর একটি, টিকিকাটার একটি, বড়মাছুয়ার একটি, ভান্ডারিয়ার ইকড়ির দুটি, লক্ষ্মীপুরের কমলনগর উপজেলার পাটারিরহাটের একটি, বরগুনা সদরের এমবালিয়াতলীর একটি, ভোলা সদরের বাপ্তার দুটি, ধনিয়ার দুটি, দৌলতখানের চরখলিফার তিনটি, কুমিল্লার দেবিদ্বারের ফতেহাবাদের একটি, ভানীর একটি, নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলার চর জব্বরের দুটি, পটুয়াখালীর সদর উপজেলার মরিচবুনিয়ার একটি, কলাপাড়ার চাকামইয়া, দশমিনার তিনটি, ডাকুয়ার একটি, চর বিশ্বাসের তিনটি, কলাগাছিয়ার একটি, বাউফলের সূর্যমনির একটি ও নওমালার একটি, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুরের মানিকপুরের একটি, কক্সবাজারের মহেশখালীর বড় মহেশখালীর একটি, বরিশালের উজিরপুরের হারতার একটি, আগৈলঝাড়ার বাকালের একটি, বগধার একটি, সদর উপজেলার রায়পাশা-কড়াপুরের একটি, চরকাউয়ার একটি, বাকেরগঞ্জের চরামদ্দির একটি, নিয়ামতির একটি, বাবুগঞ্জ উপজেলার চাঁদপাশার একটি, রহমতপুরের একটি, মেহেন্দীগঞ্জের চানপুরের একটি, বানারীপাড়ার সৈয়দকাঠীর একটি এবং সিলেট সদরের টুকের বাজার ইউপির একটি কেন্দ্র।

এদিকে প্রথম ধাপের ৭১২ ইউপির মধ্যে ৬৪০টির ফল জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত যে ৬৪০টি ইউপির ফল ঘোষণা হয়েছে তার ৪৬৯টিতে আওয়ামী লীগ, ৪৯টিতে বিএনপি, জাতীয় পার্টি (জেপি) ৭টি, জাসদ ৩, ওয়ার্কার্স পার্টি ২, জাতীয় পার্টি ২, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ১ ও স্বতন্ত্র থেকে ১০৭ জন চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

প্রথম ধাপে ৭১২টি ইউনিয়নে ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। অবশ্য এরমধ্যে আগেই ৫৪ ইউপিতে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আওয়ামী লীগ প্রার্থীরা চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়েছেন।