মেইন ম্যেনু

স্বপ্ন সবাই দেখি, কিন্তু জানেন? স্বপ্ন সম্পর্কে অবাক করা কিছু তথ্য

স্বপ্ন সবাই দেখেন আর কোনও কোনও স্বপ্ন স্মৃতিতে থেকে যায়। পরে কোনও অসতর্ক মুহূর্তে তারা অবচেতন থেকে বেরিয়ে আসে। সৃষ্টি হয় তীব্র অস্বস্তি। স্বপ্ন মানে কী অচেনা জগৎ? স্বপ্ন সবাই দেখেন। কিন্তু তা নিয়ে ভাবেন ক’জন? ভাবেন যদি বা কেউ কেউ, তাকে মনে রেখে চর্চায় রত হচ্ছেন, এমনটা সচরাচর দেখা যায় না। তবে একথাও সত্য যে, স্বপ্ন সবাই দেখেন আর কোনও কোনও স্বপ্ন স্মৃতিতে থেকে যায়। পরে কোনও অসতর্ক মুহূর্তে তারা অবচেতন থেকে বেরিয়ে আসে। সৃষ্টি হয় তীব্র অস্বস্তি। সেদিক থেকে দেখেল স্বপ্ন সম্পর্কে আমাদের জ্ঞানের স্বল্পতাই এর জন্য দায়ী। এখানে স্বপ্ন সম্পর্কিত ১০টি এমন তথ্য দেওয়া হল, যা তেমন চর্চিত নয়।

১. স্বপ্নে আমরা তেমন কিছুই দেখি, যা আমাদের জ্ঞানসীমার বাইরে নয়। সম্পূ‌র্ণ অজ্ঞাত কিছু আমরা কখনওই স্বপ্নে দেখতে পাই না। স্বপ্নে অচেনা লোক দেখলেও মনে রাখতে হবে, সেই মুখ আসলে বেশ কিছু চেনামুখেরই সমাহার।

২. অন্ধ মানুষরাও স্বপ্ন দেখেন। জন্মান্ধরা কোনও ইমেজ দেখতে পান না, কিন্তু শব্দ, ঘ্রাণ, স্পর্শ মিলে যে অবয়ব-ধারণা তাঁরা পোষণ করেন, সেগুলিই তাঁদের স্বপ্নে ফিরে আসে।

৩. স্বপ্ন সাদা-কালো না রঙিন? ১৯৫০-এর দশক পর্যন্ত ধারণা ছিল মানুষ স্বপ্নে রং দেখতে পায় না। কিন্তু ১৯৬০-পরবর্তী সমীক্ষা জানাচ্ছে, ২৫ বছরের কম বয়সিদের মধ্য ৪.৪ শতাংশ মানুষ সাদা-কালো স্বপ্ন দেখেন। বেশিরভাগ মানুষের স্বপ্নই রঙিন। এর কারণ সাদা-কালো সিনেমা এবং টেলিভিশনের যুগের অবসান।

৪. স্বপ্নে আমাদের আবেগ অবশ্যই ক্রিয়াশীল থাকে। সমীক্ষা অনুযায়ী, স্বপ্নের ডমিনেটিং ইমোশন হল উদ্বেগ।

৫. প্রতি রাতে আমরা চার থেকে সাতটি স্বপ্ন দেখে থাকি। ক্ষেত্র বিশেষে তা কম-বেশিও হয়।

৬. পুরুষ এবং মহিলাদের স্বপ্নের চরিত্র সম্পূর্ণ আলাদা। পুরুষের স্বপ্নে পুরুষ চরিত্রই বেশি আসে। মেয়েরা কিন্তু স্বপ্নে নারী ও পুরুয সমান সংখ্যাতেই দেখন।

৭. নাক ডাকলে আপনি কিন্তু স্বপ্ন দেখছেন না। তবে এটা এখনও একটা হাইপোথিসিস।এই তথ্য বৈজ্ঞানিকভাবে সমর্থিত নয়।

৮. স্বপ্নে আপনি এমন কিছু দেখতেই পারেন, যা পরে আপনার জীবনে পরে ঘটবে। এতে অতিলৌকিক কিছু নেই বলেই জানাচ্ছেন মনোবিদরা। তাঁদের মতে, ভবিষ্যতের বিভিন্ন পরিস্থিতি সম্পর্কে অবচেতন তার ব্যাকআপ তৈরি রাখে। সেই মেমরিগুলিই স্বপ্নে উঠে আসতে পারে।

৯. ঘুম মানে মস্তিষ্কের ছুটি নয়। কার্যত, স্বপ্ন দেখার সময়ে মস্তিষ্ক জাগ্রত অবস্থার চাইতে বেশি কাজ করে।

১০. স্বপ্নে অর্গাজম সম্ভব। নারী-পুরুষ নির্বাশেষে সম্ভব।-এবেলা