মেইন ম্যেনু

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সামনেই নেতাকর্মীদের হাতাহাতি

বরিশাল নগরীতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের সামনেই হাতাহাতিতে লিপ্ত হলেন আওয়ামী লীগের দু’গ্রুপের নেতাকর্মীরা। শনিবার বেলা ১২টার দিকে বরিশাল সার্কিট হাউজে এ ঘটনা ঘটে। তবে এতে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাব দিয়ে ভেতরে প্রবেশ করছিলেন। ঠিক সে সময়েই বরিশাল সদর আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) জেবুন্নেছা আফরোজ এবং কেন্দ্রীয় যুবলীগ সদস্য সেরনিয়াবাত সাদিক অব্দুল্লাহর অনুসারীদের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।

এক পর্যায়ে তারা হাতাহাতিতে লিপ্ত হয়।এতে সেখানে বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি হলে ক্ষুব্ধ হয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নেতাকর্মীদের নিবৃত করতে পুলিশকে নির্দেশ দেন। উদ্ভুত পরিস্থিতিতে এমপি জেবুন্নেছা আফরোজ তার অনুসারীদের নিয়ে সার্কিট হাউজ থেকে বেরিয়ে যান। ফলে সেখানে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আফজালুল করিম সাংবাদিকদের জানান, মন্ত্রী সার্কিট হাউজে প্রবেশের প্রাক্কালে কিছু লোকজন বিশৃঙ্খল পরিবেশ সৃষ্টি করে। ওই বিশৃঙ্খলার শিকার হন বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মো. লুৎফর রহমান মণ্ডলও। বিষয়টি দেখে মন্ত্রী নিশ্চুপ থাকতে পারলেন না। চরম ক্ষুব্ধ হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে নির্দেশ দেন।

এ অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার জন্য পুরোপুরি যুবলীগ সদস্য সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহর অনুসারীদের দোষারোপ করছেন বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আফজালুল করিম।

তবে এ বিষয়ে জানতে সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ মুঠোফোনে একাধিক কল দেয়া হলে তিনি রিসিভ করেননি।

এদিকে, হাতাহাতির বিষয়টি অস্বীকার করে পুলিশ কমিশনার মো. লুৎফর রহমান মণ্ডল বলছেন, নেতাকর্মীরা সবাই এক সঙ্গে স্লোগান দেয়ায় কিছুটা বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হয়। ফলে পরিবেশ কিছু উত্তপ্ত হয়ে উঠলে নেতাকর্মীদের তাৎক্ষণিকভাবে নিবৃত করা হয়।