মেইন ম্যেনু

স্বাধীনতার ৪৪ পরও দেশে শাসনের সঠিক কোনো পদ্ধতি গড়ে ওঠেনি

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের নায়েবে আমীর আল্লামা আব্দুল হক আজাদ বলেছন, ন্যায় নীতিভিত্তিক রাষ্ট্রনীতি এবং সৎ যোগ্য নেতৃত্ব যদি দেশে না থাকে তাহলে দেশ ও সাধারণ মানুষের জীবন যে কত দূর্বিষিত হয়, তার বাস্তব নিদর্শন হলো বাংলাদেশের বিরাজমান রাজনৈতিক অবস্থা।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নোয়াখালী পৌর মিলনায়তনে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ জেলা শাখার উদ্যোগে ওলামা ও সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আব্দুল হক আজাদ এসব কথা বলেন। তিনি আরো বলেন, স্বাধীনতার ৪৪ পরও দেশে শাসনের সঠিক কোন পদ্ধতি গড়ে ওঠেনি। পদ্ধতি যা গড়ে উঠেছে তা অত্যন্ত বিভীষিকাময়, হৃদয়বিদারক, ধ্বংসাতœক, হিংসাত্মক, ভয়ংকর, জংলী ও বর্বর।

বাংলাদেশের রাজনীতিবিদরা কথা বলেন সন্ত্রসীদের ভাষায়। তিনি বলেন, এ দেশে অনেক নেতা, দফা ও সরকার কাঠামের পরিবর্তন হয়েছে, গণতন্ত্র উদ্ধার আর গণতন্ত্র রক্ষার নামে অনেক আন্দোলন সংগ্রাম হয়েছে। হাজার হাজার মানুষের জীবন ধ্বংস হয়েছে, হাজার হাজার কোটি টাকার সম্পদ নষ্ট হয়েছে, এত কিছুর পরেও কি সুস্থ কেনো রাজনৈতিক ধারা এবং সঠিক পদ্ধতি গড়ে উঠেছে ? আদৌ না, বরং এর থেকে উত্তরণে এবং দেশের শান্তি, মানুষের জানমালের নিরাপত্তার জন্য ইসলামী হুকুমতের বিকল্প নেই, আর ইসলামী হুকুমত প্রতিষ্ঠার জন্য দেশের ওলামায়ে কেরাম, বুদ্ধিজিবী, শিক্ষাবিদগণকে এগিয়ে আসতে হবে।

ইসলামী আন্দোলন নোয়াখালী জেলা শাখার সভাপতি মাওলানা নজীর আহমদের সভাপতিত্বে সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় নেতা ঢাকা মহানগরের সংগ্রামী সভাপতি অধ্যক্ষ হাফেজ মাওলানা এটিএম হেমায়েত উদ্দীন, কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদক মাওলানা লোকমান হোসেন জাফরী।

ওলামা সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, ইসলামী আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সদস্য আলহাজ্ব সেলিম মাহমুদ, ইসলামী শ্রমিক আন্দোলরে কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মাওলানা খলিলুর রহমান, ছাত্র আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সেক্রেটারী জেনারেল শেখ মুহাম্মদ ফজলুল করীম মারুফ, চট্টগ্রাম মহানগর সভাপতি আল মুহাম্মদ ইকবাল, আল্লামা শিব্বীর আহমদ, হযরত হাফেজ্জী হুজুরের জামাতা আল্লামা খালেদ সাইফুল্ল্যা, আল্লামা জয়নাল আবেদীন, মাওলানা আবু বকর সিদ্দীক, মাওলানা শফি উল্যা, মুফতী মুহাম্মদ আছেম, মুফতী ইউছুফ কাসেমী, মাওলানা সিদ্দীকুর রহমান, মাওলানা শফিক উল্যা চটকিবাড়ী, মুফতী মুইনউদ্দীন তৈয়্যবপুরী, মাওলানা মোশারফ হোসেন, প্রফেসর মুয়জ্জিম হোসাইন, প্রফেসর মুহাম্মদ শাহ আলম, আন্দোলনের জেলা সহ-সভাপতি সফি উল¬াহ আল মোস্তফা, সেক্রেটারী মাওলানা কামাল উদ্দীন, মাওলানা ফিরোজ আলম, অধ্যক্ষ আবদুর রহিম প্রমুখ।