মেইন ম্যেনু

স্বামী নিখোঁজ, অভিযোগ সেই সেনার স্ত্রীর

ফেসবুকে ভিডিও পোস্ট করার পর থেকেই নিখোঁজ সেনা তেজ বাহাদুর যাদব। মঙ্গলবার ফেসবুকে এই অভিযোগ করলেন তাঁর স্ত্রী।

সোমবার সন্ধ্যা থেকেই ওই সেনার খোঁজ নেই। ফেসবুকে পোস্টটিতে হিন্দিতে তিনি লেখেন, ‘‌গতকাল সন্ধ্যা থেকে আমি স্বামীর সঙ্গে কথা বলিনি এবং আমরা জানিও না তিনি কোথায়, কী করছেন?‌’‌ ‌পোস্ট করার আধ ঘণ্টার মধ্যে ৮৫০ জন সেটি শেয়ার করেন। আরও ২৪০০ জন পোস্টটিতে নিজের প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন।
কিন্তু এরপরই ফেসবুক থেকে রাত ৯টা নাগাদ ওই পোস্টটি সরিয়ে দেয়া হয়। কিন্তু তাতে দমে যাননি তেজ বাহাদুরের স্ত্রী। কিছুক্ষণ পর একই কথা লিখে আরও একটি পোস্ট করেন। এর আগে সোমবার সীমান্তে সেনার প্রতি চরম অবহেলার অভিযোগ তুলেছিলেন বিএসএফ জওয়ান তেজ বাহাদুর যাদব। ফেসবুকে ভিডিও প্রকাশ করে ভারতীয় সেনার দুরবস্থার কথা সামনে আনেন সীমান্ত রক্ষীবাহিনীর কনস্টেবল তেজ বাহাদুর যাদব। তিনটি আলাদা আলাদা ভিডিও প্রকাশ করেন তিনি। তাতে সীমান্তরক্ষীবাহিনীর নিম্ন মানের খাবারের নমুনা সকলের সামনে তুলে ধরেছেন ৪০ বছর বয়সী তেজ বাহাদুর। এরপরেই বলেন, ভিডিও প্রকাশ করে সেনাবাহিনীর দুরবস্থা নিয়ে মুখ খোলায় তাঁর জীবনের ঝুঁকি বাড়তে পারে। কিন্তু কী দুর্বিষহ কষ্টের মধ্যে তাঁদের দিন কাটছে, তা যেন দেশের মানুষ জানতে পারেন।

এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির হস্তক্ষেপ চান তিনি। তদন্তেরও দাবি করেন। এরপরেই তেজ বাহাদুরকে হেডকোয়ার্টারে বদলি করে তাঁকে দিয়ে কলের মিস্ত্রির কাজ করানো শুরু হয়েছে। এমনকী ভিডিওটি সরিয়ে নেয়ার নির্দেশও দেয়া হয়েছে। সীমান্তরক্ষীবাহিনীর কর্মকর্তারা অবশ্য সমস্ত অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন। তাঁদের দাবি, ২০১০ সালে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে হুমকি দেয়ায় তেজ বাহাদুরকে চার বছরের জন্য সাসপেণ্ড করা হয়। সেই রাগ মেটাতে যা ইচ্ছে তাই বলে বেড়াচ্ছেন। ‌স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং ইতিমধ্যেই বিএসএফের কাছ থেকে পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট চাইতে বলেছেন স্বরাষ্ট্র সচিবকে। ‌

সূত্র: ‌আজকাল