মেইন ম্যেনু

স্বামী পেটানোয় বিশ্বে উপরের সারিতে ভারতীয় নারীরা

সারা ভারতে নারী নির্যাতনের ঘটনা যখন জ্বলন্ত সমস্যা হয়ে দেখা দিয়েছে, তখন ভারতীয় নারীদের অন্য রূপ উঠে এল এক সমীক্ষায়। তথ্য অনুযায়ী, স্বামী পেটানোয় বিশ্বে উপরের সারিতে রয়েছে তারা। তাও একেবারে বিশ্বে তৃতীয় স্থানে আছেন ভারতীয় নারীরা।

যে দেশে নারী নির্যাতন সবথেকে বড় সমস্যা সেখানে এই তথ্য রীতিমতো চমকপ্রদ। তবে ইউএন-এর সমীক্ষার রিপোর্ট সেদিকেই ইঙ্গিত করছে। সমীক্ষা অনুযায়ী, স্বামী পেটানোয় প্রথম স্থানে আছেন মিশরের মহিলারা। সেখানে অন্তত ৬৬ শতাংশ মহিলা স্বামীকে মারধর ও নানাভাবে হেনস্তা করেছেন। তারপর ফ্যামিলি কোর্টে বিচ্ছেদের মামলা করেছেন। তালিকায় দ্বিতীয় স্থানেই আছে ইংল্যান্ড।

আশ্চর্যজনকভাবে তৃতীয় স্থান দখল করেছে ভারত। পাশবিক নির্যাতন থেকে গার্হস্থ্য সমস্যায় জেরবার ভারতের ক্ষেত্রে এই স্থান পাওয়া বেশ অবাক করার মতোই। বিয়ে, পণপ্রথার কবলে পড়ে নারীরা যেমন নির্যাতিত হচ্ছেন, তেমন পাল্টা মার দেওয়ার ঘটনাও যে বিরল নয়, সে সত্যিই প্রকাশ করছে এই সমীক্ষা। আরও জানা যাচ্ছে, ভারতীয় মহিলারা মারধরের ক্ষেত্রে মূলত বেলনচাকি-সহ রান্নাঘরের সামগ্রী, বেল্ট ও জুতোই হাতে তুলে নেন।

এই সমীক্ষা প্রকাশ হওয়া মাত্র ঝড় উঠেছে ভারতের সোশ্যাল মিডিয়ায়। নিঃশব্দে হলেও বহু পুরুষ এই সমীক্ষার সঙ্গে একমত হবেন বলে মনে করছেন অনেকে। অন্যদিকে এই তথ্যকে সদর্থক হিসেবেই দেখছেন ভারতীয় মহিলারা। নারী নির্যাতনের ঘটনা ঘটলেও মেয়েরা যে পড়ে পড়ে মার খাওয়ার পাত্রী নন, সে যুক্তিই তুলে ধরছেন তারা। তাদের দাবি, এ তালিকায় যত সামনে আসবে ভারত, তত কমবে মিতাদের অকালমৃত্যুর ঘটনা।-সংবাদ প্রতিদিন