মেইন ম্যেনু

স্বামী-স্ত্রীর বয়সের পার্থক্য মাপার অভিনব ফর্মুলা

স্বামী ও স্ত্রীর মধ্যে বয়সের পার্থক্য ক’বছরের হওয়া উচিত? এ নিয়ে রয়েছে নানান মত। এক্ষেত্রে বয়সের পার্থক্যের কোনো বাধাধরা নিয়মও নেই। কিন্তু অনলাইনে পাওয়া একটি প্রতিবেদনে এমন একটি সূত্র পাওয়া গেছে।

বয়সের পার্থক্য নির্ণয়ের জন্য একটি ছোট্ট অঙ্ক কষে নিতে হবে। যার মাধ্যমে আপনি নিজেই বাড়িতে বসে বুঝে নিতে পারবেন, আপনার বয়স কত হলে কোন বয়সের পাত্রী আপনাকে বেছে নিতে হবে। তবে বলে নেওয়া ভাল, এটাই যে ধ্রুব সত্য এমন কোনো কথা নেই। জনপ্রিয় একটি বিয়ে সংক্রান্ত ওয়েবসাইটে প্রতিবেদনটি প্রকাশিত হয়েছে।

বিয়ে একটি ছেলে বা মেয়ের জীবনে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। সারাটা জীবন যাঁকে সঙ্গে নিয়ে থাকবেন। জীবনের সুখ দুঃখের আনন্দের সঙ্গী হয়ে থাকবেন। আপনার বয়স দেখে জেনে নিন আপনার বউয়ের বয়স কত হওয়া উচিৎ!

কী করতে হবে আপনাকে?

আপনার বয়সকে দুই দিয়ে ভাগ করুন। তারপর তার সঙ্গে সাত যোগ করুন। ব্যাস! তাহলেই জেনে যাবেন কোন বয়সের মেয়ে আপনার পাত্রী হওয়ার যোগ্য।
ধরুন, ছেলের বয়স ২৪। তাহলে ২৪ কে ২ দিয়ে ভাগ করুন। দাঁড়াবে ১২। এবার তার সঙ্গে ৭ যোগ করলেই পেয়ে যাবেন পাত্রীর বয়স।
(২৪/ ২ = ১২ +৭ = ১৯ তাহলে বউয়ের বয়স হওয়া উচিত= ১৯)
আপনার বয়স ৩১ হলে? ২ দিয়ে ভাগ করে সংখ্যাটি থেকে দশমিক বাদ দিন। অর্থাৎ ৩১/২= ১৫.৫। এক্ষেত্রে ফলাফলকে ১৫ বা ১৬ ধরে করুন। (১৬+৭=২৩)
আর দেরি কেন, বাড়িতে বসে কষে ফেলুন সহজ এই অঙ্ক!