মেইন ম্যেনু

স্বামী-স্ত্রী আলাদা ঘুমালে যা হয়

সাম্প্রতিক এক জরিপে দেখা যায়, আজকাল স্বামী-স্ত্রীরা আলাদা ঘুমাতে অনেক আগ্রহী হয়ে উঠেছেন। তাদের ধারণা, এতে তারা আগের তুলনায় বেশি ঘুমাতে পারেন।

মনস্তাত্ত্বিক বিজ্ঞানীদের মত, অনেক দম্পত্তি রয়েছেন যারা আলাদা ঘুমাতে পছন্দ করেন। সাধারণত দম্পত্তিরা এক সঙ্গে ঘুমালে স্ত্রীর সংস্পর্শে স্বামীর ঘুমের সমস্যা হয় কিংবা অনেক দম্পত্তিরা নাক ডেকে ঘুমান, ফলে তারা স্বাচ্ছন্দ্যে ঘুমাতে পারেন না। অনেক সময় স্বামী তার স্ত্রীর অনুভূতিকে আঘাত না দেওয়ার জন্য প্রায়ই এ বিষয় নিয়ে কথা বলেন না।

দম্পত্তি সম্পর্ক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. নন্দিনি রায় বলেন, আমি অনেক নারী-পুরুষের সঙ্গে কথা বলেছি; যারা তাদের সঙ্গীকে খুবই ভালবাসেন। কিন্তু তারা আলাদা ঘুমায় এ ভেবে যে তাদের সম্পর্কটা অতিরঞ্জিত হয়ে যাচ্ছে। তাছাড়া, ঐতিহ্যগতভাবে স্বামী-স্ত্রীরা এক সঙ্গে ঘুমান। কিন্তু, আলাদা ঘুমানোকে তারা ট্যাবু হিসেবে উল্লেখ করেন। সম্পর্কের গভীরতা উপলদ্ধির জন্যও তারা মাঝে মাঝে আলাদা ঘুমিয়ে থাকেন।

ঘুম বিশেষজ্ঞ রাসিকা খাতুন মনে করেন, পর্যাপ্ত পরিমাণ ঘুম না হলে স্বাস্থ্যের যেমন ক্ষতি হয়, তেমনি দাম্পত্য জীবনেও শারীরিক সম্পর্কে ফাটল ধরতে পারে। যে দম্পত্তিরা ঘুমের সমস্যায় ভোগেন, তাদের পর্যাপ্ত না ঘুমিয়ে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করা উচিৎ নয় বলে মনে করেন রাসিকা খাতুন। ঘুমের স্বল্পতা শারীরিক সম্পর্কে নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।