মেইন ম্যেনু

স্বাস্থ্যসম্মত জীবনযাপনে কমে ক্যান্সারের ঝুঁকি

বিশ্ব ক্যান্সার গবেষণা তহবিলের (ডব্লিউসিআরএফ) তথ্য মতে, শুধুমাত্র ব্রিটেনেই স্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাস, ব্যায়াম এবং অ্যালকোহল গ্রহণের পরিমাণ কমালে এক-তৃতীয়াংশ ক্যান্সারের ঝুঁকি হ্রাস সম্ভব।

পরিসংখ্যান মতে, প্রতিবছর শুধুমাত্র স্বাস্থ্যসম্মত জীবনযাপনের কারণে ২০ হাজার স্তন ক্যান্সার এবং ১৯ হাজার অন্ত্র ক্যান্সার প্রতিরোধ করা সম্ভব।

২০১৩ সালে যুক্তরাজ্যে তিন লাখ ৫১ হাজার ক্যান্সার রোগী শনাক্ত করা হয়। ডব্লিউসিআরএফের মতে, এদের মধ্যে ৮৪ হাজার লোকের ক্যান্সার প্রতিরোধ করা সম্ভব ছিলো। গবেষক দলের প্রধান ডা. রাচেল থমসন বলেন, স্বাস্থ্যকর খাদ্যগ্রহন এবং জীবনযাত্রায় পরিবর্তন আসলে ক্যান্সার প্রতিরোধে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি সম্ভব। দৈনিক ১০-১৫ মিনিট শারীরিক পরিশ্রম, পরিমিত অ্যালকোহল গ্রহণ, অতিরিক্ত ক্যালরি গ্রহণ থেকে বিরত থাকা, চিনিযুক্ত পানীয় গ্রহণ হ্রাস করেই এই পরিবর্তন সম্ভব।

তিনি আরও বলেন, ধূমপান ত্যাগ করলে অবশ্যই ব্যক্তির ওজন কমবে এবং এটি ক্যান্সার প্রতিরোধে একটি গুরুত্বপূর্ণ অগ্রগতি নিঃসন্দেহে। কারণ স্থূলতা ১০ শতাংশ ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়ায় বলে প্রমাণিত।

ব্রিটেনে প্রতিবছর স্থূলতা হ্রাস করে পুরুষদের নয় শতাংশ প্রোস্টেট ক্যান্সার এবং ধূমপান ত্যাগ করে ৩৩ শতাংশ ফুসফুস ক্যান্সার প্রতিরোধ করা যাবে। এছাড়া মনোপোজের পর ব্যায়াম এবং ওজন নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে ৩৮ শতাংশ নারী স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি এড়িয়ে যেতে পারেন।