মেইন ম্যেনু

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ঘেরাওয়ে পুলিশের বাধা

মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষা বাতিল দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ঘেরাওয়ের জন্য মহাখালীর দিকে রওনা হয়। শিক্ষার্থীরা কারওয়ান বাজার পৌঁছলে পুলিশ বাধা দেয়।

এর আগে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা দুপুর ১২টার দিকে শাহবাগ মোড়ে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করে। এতে ওই সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। পরে তারা মহাখালীতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের উদ্দেশে রওনা হয়।

তাদের মিছিলটি কারওয়ান বাজারে পৌঁছলে পুলিশ বাধা দেয়। এ সময় শিক্ষার্থীরা কারওয়ান বাজারে রাস্তার ওপর অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ শুরু করে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত শিক্ষার্থীরা কারওয়ান বাজারেই অবস্থান করছিলো।

Medical

শিক্ষার্থীদের সড়ক থেকে সরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছে পুলিশ। তবে তারা শিক্ষার্থীদের ওপর কোনো বলপ্রয়োগ করেনি। পুলিশ ও আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

এদিকে মেডিক্যাল ও ডেন্টালে ভর্তি পরীক্ষা বাতিল, নতুন করে পরীক্ষা গ্রহণ এবং প্রশ্নপত্র ফাঁসকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তিসহ চার দফা দাবিতে সারা দেশে ছাত্র ধর্মঘট পালন করছে প্রগতিশীল ছাত্রজোট ও সাম্রাজ্যবাদ বিরোধী ছাত্রঐক্য।

অন্যদিকে সব মেডিক্যাল কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাস ও পরীক্ষা বর্জন কর্মসূচি পালন করা হচ্ছে। মেডিক্যালে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের আহ্বানে এ কর্মসূচি পালন করা হচ্ছে।

medical

ছাত্র ধর্মঘটে সাড়া দিয়েছেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। প্রতিবাদী মিছিল স্লোগানে মুখর হয়ে উঠে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) ক্যাম্পাস। তাদের দুটি দাবি হলো- একের পর এক প্রশ্নপত্র ফাঁস বন্ধ করতে হবে ও আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের ওপর পুলিশি হামলার সুষ্ঠু তদন্ত করে যথাযথ শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। আন্দোলনকারীদের এ দাবিগুলোর প্রতি শতভাগ সমর্থন দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। তাদের দাবি সম্পূর্ণ যৌক্তিক বলে জানান বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. এম আমজাদ আলী।

প্রসঙ্গত, গত ১৮ সেপ্টেম্বর সারা দেশে মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। ওই দিনই প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগে শিক্ষার্থীরা আন্দোলনের ডাক দেয়। পরীক্ষার দিন সকালে আগারগাঁওয়ে ইউজিসির সহকারী পরিচালককে প্রশ্নপত্রসহ র‌্যাব গ্রেফতার করলে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন আরো গতি পায়।