মেইন ম্যেনু

‘স্রষ্টার গজব পড়বে সৌদি আরবে’

সৌদি সরকার সে দেশের প্রখ্যাত শিয়া আলেম শেখ নিমর আল নিমরকে বিচারের নামে হত্যা করেছে উল্লেখ করে ইরানের সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ আল খামেনি বলেছেন, এই জন্য সৌদি আরবে ‘স্রষ্টার গজব’ নাজিল হবে।

রোববার সকালে ফিকহ শাস্ত্রের নিয়মিত ক্লাসের অংশ হিসেবে এক আলোচনায় তিনি এ কথা বলেন।

এদিকে শেখ নিমরের শিরশ্ছেদের প্রতিবাদে শনিবার রাতে রাজধানী তেহরানে সৌদি দূতাবাসে ভাঙচুর ও আগুন ধরিয়ে দিয়েছে বিক্ষোভকারীরা। পরে পুলিশ এসে বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এ ঘটনায় ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে বিক্ষোভকারীদের শান্ত থাকার আহ্বান জানিয়ে বলেন, কূটনৈতিক বিষয়কে অবশ্যই সম্মান জানাতে হবে।

তেহরানের পুলিশ প্রধান বলেছেন, পেট্রোল বোমা ও পাথর নিয়ে সৌদি দূতাবাসে হামলার সময় বেশ কয়েকজন উচ্ছৃঙ্খল বিক্ষোভকারীকে আটক করা হয়েছে। দেশটির এক সরকারি আইনজীবীর বরাত দিয়ে রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা ইরনা জানিয়েছে, দূতাবাসের সামনে থেকে ৪০ জন বিক্ষোভকারীকে আটক করা হয়েছে।

ইরানের সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ খামেনি নিমরের শিরশ্ছেদের ঘটনায় সৌদি আরবের কঠোর নিন্দা জানিয়ে বলেছেন, সুন্নি রাজতন্ত্র শাসিত এই দেশের নেতারা ‘স্রষ্টার গজবের’ শিকার হবে। তিনি বলেন, নিপীড়িত জনতার এই নেতা সৌদি সরকারের বিরুদ্ধে কোনো গোপন ষড়যন্ত্রে লিপ্ত ছিল না। তিনি জনগণকে শসস্ত্র সংগ্রামের দিকেও আহ্বান জানাননি। তিনি শুধু ধর্মীয় দায়িত্ব পালনের লক্ষ্যে সৎ কাজের আদেশ ও অসৎ কাজের নিষেধ করার জন্য প্রকাশ্যে সৌদি সরকারের সমালোচনা করতেন।

শিরশ্ছেদের মাধ্যমে শেখ নিমরের হত্যাকাণ্ড সৌদি সরকারের রাজনৈতিক অপরাধ বলেও মন্তব্য করেন খামেনি। ইরানের রেভল্যুশনারি গার্ড সৌদি আরবের সুন্নি রাজতন্ত্রের বিরুদ্ধে ‘কঠিন প্রতিশোধ’ নেওয়ার প্রতিজ্ঞা করেছে।

এদিকে সৌদি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, শিরশ্ছেদ করা ৪৭ জনের সবাই সন্ত্রাসী অভিযোগে অভিযুক্ত। অভিযুক্তরা স্থানীয় আবাসিক ভবন ও সরকারি স্থাপনায় হামলার পরিকল্পনা ও অংশগ্রহণ করেছে।

শনিবার সৌদি আরবের রাজতন্ত্রের বিরুদ্ধে মদদ দেওয়ার অভিযোগে মৃতুদণ্ডপ্রাপ্ত সর্বোচ্চ শিয়া নেতা শেখ নিমর আল নিমরকে শিরশ্ছেদ করা হয়। একই সঙ্গে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের দায়ে আল কায়েদাসহ আরো ৪৬ জনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করে সৌদি সরকার। এদের মধ্যে দুজন মিশরীয় নাগরিক।

তথ্যসূত্র : রয়টার্স ও আল জাজিরা অনলাইন।