মেইন ম্যেনু

হকারির আড়ালেও চলছে জাল টাকার ব্যবসা

রাজধানীতে ছয় লাখ টাকার জাল নোটসহ দুই জনকে আটক করেছে র‌্যাব। এরা হলেন- সাইদুল ইসলাম (২০) ও খোকন মিয়া (২২)।

গত মঙ্গলবার দিবাগত রাতে দারুস সালাম থানাধীন দারুস সালাম টাওয়ারের নিচে রাফাত জেনালের স্টোরের সামনে থেকে তাদের হতেনাতে আটক করা হয়।

র‌্যাব-২ এর অপারেশন অফিসার মারুফ আহমেদ জানান, সাইদুল ও খোকন পেশায় হকার। তারা নিউমার্কেট এলাকায় রাস্তার পাশে দোকান নিয়ে জামা-কাপড় বিক্রি করে। বেশি মুনাফার লোভে এরা জাল টাকার ব্যবসায় জড়িয়ে পড়ে। জিজ্ঞাসাবাদে তারা জানিয়েছে, প্রতিটি ১০০০ টাকার জাল নোট ৩০০ টাকায় কিনে তারা। নিউমার্কেটে সব সময় মানুষের আনাগোনায় ব্যস্ততম এলাকায় হওয়ায় সহজেই কৌশলে এ টাকা অনেককে গছিয়ে দেয়। আর রমজান ও ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে রাজধানীর বিপনী দোকানগুলোতে ক্রেতা সাধারণের সমাগম বেশি হওয়ায় এরা বড় বড় শপিংমলের পাশে অবস্থান করে এবং কৌশলে টাকা খুচরা করার নামে বা কিছু কেনারা পর ফিরতি টাকায় জাল টাকা গছিয়ে দেয়।

তারা আরো জানায়, জালনোট প্রস্তুতকারীরা পাইকারি বিক্রেতার কাছে এক লাখ টাকার একটি বান্ডিল ৩০-৩৫ হাজার টাকায় বিক্রি করে। পাইকারি কারবারিরা আবার এসব টাকা খুচরা কারবারির কাছে ৪০-৫০ হাজার টাকায় বিক্রি করে। তৃতীয় ধাপে খুচরা কারবারিরা এসব টাকা নিজস্ব লোকজনের মাধ্যমে তা সরাসরি ঢাকার গুলিস্তান, যাত্রাবাড়ী, ফার্মগেট, সদরঘাট, নিউমার্কেট, কাওরান বাজার, গাবতলী, মিরপুরসহ বিভিন্ন এলাকায় বিক্রি করে। অশিক্ষিত, অর্ধশিক্ষিত, বৃদ্ধ, দরিদ্র ও নিম্নআয়ের লোকেরাই হচ্ছে নোট জালকারীদের প্রধান টার্গেট।