মেইন ম্যেনু

হজ ইস্যুতে সমঝোতায় ব্যর্থ ইরান ও সৌদি

হজ ইস্যুতে কোনো সমঝোতায় উপনীত হতে ব্যর্থ হয়েছে ইরান এবং সৌদি আরব। ইরানের নাগরিকরা চলতি বছর হজে যেতে পারবেন কি না- এই ইস্যুতে দেশ দুটির মধ্যে আলোচনা চলছিল। ব্যর্থতার জন্য দুই দেশের কর্মকর্তারা একে অপরকে দোষারোপ করেছেন।

সৌদি কর্মকর্তাদের দাবি, ইরানের ইচ্ছা অনুযায়ী সমাধান দেয়া সত্ত্বেও তারা তা মেনে নেয়নি। আর এ কারণে তারা আলোচনা থেকে ওয়াক আউট করেছেন।

সৌদি হজ মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, ‘চলতি বছর ইরানি নাগরিকদের হজ করতে না দেয়ার কারণে ইরানের সরকার আল্লাহ এবং তার দেশের জনগণের কাছে দায়ী থাকবে।’ হজের মতো একটি ধর্মীয় অনুষ্ঠানকে রাজনীতির বাইরে রাখার ওপরও সৌদি নেতৃবৃন্দ জোর দিয়েছেন বলে বিবৃতিতে বলা হয়।

এর আগে ইরানের হজ বিষয়ক দপ্তরের প্রধান সাইদ ওহাদি দেশটির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন প্রেস টিভিতে জানিয়েছিলেন, ইরানি হাজিদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা না হলে তারা সৌদি আরবে কোনো হাজি পাঠাবেন না। সৌদি সরকারের সমন্বিত কোনো সিদ্ধান্তের অভাবেই হাজি প্রেরণ বিষয়ক চুক্তিতে দেরি হচ্ছে বলেও জানান ওহাদি।

সৌদি আরবে শিয়া নেতা নিমর আল নিমরের মৃত্যুদণ্ড কার্যকরকে কেন্দ্র করে ইরান এবং সৌদি আরবের সম্পর্কের অবনতি শুরু হয়। ওই ঘটনায় ইরানের বিক্ষুব্ধ জনতা তেহরানের সৌদি দূতাবাসে আগুন দিলে দেশটির সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করে সৌদি আরব।

এছাড়া গত বছর হজের সময় মক্কায় পদদলিত হয়ে কয়েকশ লোক হাজি নিহত হয়। এদের মধ্যে ইরানের ৪৬০ জন হাজি রয়েছে বলেও দাবি তাদের। সৌদি সরকার ওই ঘটনার তদন্ত করতে ব্যর্থ হয়েছে বলে অভিযোগ ইরানের।