মেইন ম্যেনু

হঠাৎই গ্যাসের সমস্যা

খাবারের অনিয়ম, বেশি তেল-চর্বি খাবারে অভ্যস্ত আবার কখনো না খেয়ে থাকার জন্য হতে পারে গ্যাসের সমস্যা। রোজা থাকার সময় অনেকে এমন সমস্যায় পড়তে পারেন। শারীরিক অস্বস্তি, বিব্রতকর পরিস্থিতি এবং অনেক ক্ষেত্রেই ভীষণ যন্ত্রণাদায়ক হয় সেই ব্যথা। গ্যাস বেশি হলে হৃদযন্ত্রের ওপর চাপ পড়ে বেড়ে যেতে পারে হৃদকম্পন। হার্ট অ্যাটাকের কারণও হতে পারে এই গ্যাস। প্রদাহ জনিত গ্যাসের সমস্যায় ভোগা মানুষের সংখ্যা নিতান্ত কম নয়। গ্যাসের সমস্যা সব বয়সী মানুষের হতে পারে। সাধারণত এসিডিটির সমস্যাকেই সবাই আমরা গ্যাসের সমস্যা হিসেবে চিহ্নিত করি।

পরিপাকতন্ত্রের সমস্যার কারণেই অতিরিক্ত গ্যাস তৈরি হতে পারে। পেটে গ্যাস হলে অনেক সময় বমি ভাব এবং পেটে ব্যাথা, বুক জ্বালাপোড়া অনুভূত হতে পারে। গবেষণায় দেখা গেছে, আঁশযুক্ত খাবার ও শাকসবজি বেশি খেলে পাকস্থলী তার সবটা সহজে পরিপাক করতে পারে না। কিছু খাবার অপরিপাক অবস্থায় চলে যায় ক্ষুদ্রান্ত্রে। সেখানে কিছু ব্যাকটেরিয়া ওসব খাবার খায়। কিন্তু ব্যাকটেরিয়াগুলো ক্ষণজীবী। সব খাবার খাওয়ার আগেই মরে যাওয়া ব্যাকটেরিয়াগুলো থেকে তৈরি হয় গ্যাস। আবার অনেক সময় চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়াই ওষুধ খেয়ে পেটের ভেতরে বুদবুদগুলিকে একত্রিত করে ফেলি। এতে তৈরি হয় গ্যাস।

গ্যাসের সমস্যাকে হালকাভাবে নেয়ার কোন উপায় নেই। গ্যাসের সমস্যা থেকেই ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ, ফুড পয়জনিং, কিডনিতে পাথর, আলসার ইত্যাদি সমস্যা হতে পারে। তবে কিছু বিষয় মেনে চললে গ্যাস সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব-

* হজমে অসুবিধা হয় এমন খাবার খাওয়ার অভ্যাস দূর করুন।

* প্রতিদিন সকালে বাসি পেটে আধা লিটার পানি খাওয়ার অভ্যাস গ্যাসের সমস্যা তাড়াতে সক্ষম।

* নিয়মিত ইসপগুল বা ঘৃতকুমারীর শরবত খেলে গ্যাসের সমস্যা দূর হয়।

* খাবার ধীরে খান, সঙ্গে পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি পান করুন।

* ধুমপান, অ্যালকোহল, চুইংগাম ও শক্ত চকোলেট খাওয়া বাদ দিন।

* বিয়ার জাতীয় পানীয় এড়িয়ে চলুন। এগুলি শরীরে কার্বন ডাই-অক্সাইডের পরিমান বাড়িয়ে দেয়।

* লক্ষ্য রাখতে হবে যেন দীর্ঘ সময় পেট খালি না থাকে।

* খাবার খাওয়ার পর কিছু সময় হাঁটাহাটি করুন।

* প্রাকৃতিক হজমিগুলিও খাওয়া যেতে পারেন।

* বিভিন্ন রকম প্রাকৃতিক চা যেমন সবুজ চা, পুদিনা চা, তুলসী হজম ক্ষমতা বাড়ায় এবং গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা সমাধান করে।

* পেটে গ্যাসের সমস্যার থেকে মুক্তি পাওয়ার সবচেয়ে সহজ ঘরোয়া সমাধান হলো আদা খাওয়া। প্রতিবেলা খাবার খাওয়ার পর এক টুকরা আদা মুখে নিয়ে চিবিয়ে রস খান। তাহলে পেটে গ্যাস জমবে না এবং গ্যাস্ট্রিকের ব্যথার থেকে মুক্তি মিলবে। যারা আদা সরাসরি খেতে পারেন না তাঁরা রান্নায় বেশি করে আদা ব্যবহার করুন।