মেইন ম্যেনু

হঠাৎ কমে গেছে রেমিটেন্স

চলতি অর্থবছরের প্রথম মাসে প্রবাসীদের পাঠানো অর্থে নিম্নমুখি প্রবণতা দেখা গেছে। সদ্য সমাপ্ত জানুয়ারি মাসে ১১৫ কোটি ১৯ লাখ ৫০ হাজার মার্কিন ডলারের রেমিটেন্স দেশে এসেছে। প্রবাসীদের পাঠানো এ অর্থ পূর্ববর্তী বছরের একই মাসের তুলনায় ৭.৩৪ শতাংশ কম।

প্রতিবেদনে দেখা গেছে, চলতি ২০১৫-২০১৬ অর্থবছরের প্রথম সাত মাসে আসা মোট রেমিটেন্সের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৮৬৩ কোটি ৯১ লাখ ৪০ হাজার মার্কিন ডলার। এর মধ্যে জানুয়ারিতে যে রেমিটেন্স এসেছে তা তৃতীয় সর্বনিম্ন।

জানা যায়, গত জুলাই থেকে জানুয়ারি পর্যন্ত প্রবাসীদের পাঠানো অর্থ পূর্ববর্তী অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় ১.০৪ শতাংশ কম। ২০১৪-২০১৫ অর্থবছরের প্রথম সাত মাসে ৮৭৩ কোটি ৪ লাখ মার্কিন ডলারের রেমিটেন্স এসেছিল। ওই পুরো অর্থবছরে মোট ১ হাজার ৫৩১ কোটি ৬৯ লাখ ১০ হাজার মার্কিন ডলার দেশে পাঠিয়েছিলেন প্রবাসীরা, যা এ যাবৎকালের মধ্যে সর্বোচ্চ।

জানুয়ারিতে প্রবাসীদের পাঠানো রেমিটেন্স আহরণে প্রথম স্থানে রয়েছে বেসরকারি খাতের ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড। এ ব্যাংকটির মাধ্যমে রেমিটেন্স এসেছে ২৭ কোটি ৫৪ লাখ মার্কিন ডলারের সমপরিমাণ। দ্বিতীয় ও তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে রাষ্ট্রায়ত্ত অগ্রণী ও সোনালী ব্যাংক লিমিটেড। এ ব্যাংকগুলো মাধ্যমে রেমিটেন্স এসেছে যথাক্রমে ১২ কোটি ৫১ লাখ ও ১০ কোটি ৬০ লাখ মার্কিন ডলারের সমপরিমাণ।