মেইন ম্যেনু

হঠাৎ করে আড়ালে কেন অপু বিশ্বাস?

দেশীয় চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় নায়িকা অপু বিশ্বাস। আহসানুল হক মিনুর মাধ্যমে ২০০৪ সালে আমজাদ হোসেনের ‘কাল সকালে’ ছবিতে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে চলচ্চিত্রে পদার্পণ করেন। তখন অপু বিশ্বাস নবম শ্রেণীর ছাত্রী। এরপর ২০০৬ সালে এফ আই মানিক পরিচালিত ‘কোটি টাকার কাবিন’ ছবিতে প্রধান নায়িকা হয়ে অভিনয় করেন শাকিব খানের বিপরীতে। ছবিটি ব্যবসাসফল হওয়ার পর অপু বিশ্বাস রাতারাতি তারকা বনে যান। খবর-মা,জ,অ

শাকিব খানের সঙ্গে তার জুটি দর্শকের কাছে গ্রহণযোগ্যতা পায় দারুণভাবে। অপু-শাকিব অভিনীত সুপারহিট ব্যবসাসফল ছবির মধ্যে রয়েছে ‘পিতার আসন’, ‘চাচ্চু’, ‘দাদি মা’, ‘মিয়া বাড়ির চাকর’, ‘জন্ম তোমার জন্য’, ‘মায়ের হাতে বেহেশতের চাবি’, ‘মাই নেম ইজ খান’, ‘হিরো দ্য সুপারস্টার’, ‘লাভ ম্যারেজ’ প্রভৃতি। আর এ জুটি অভিনীত মুক্তির অপেক্ষায় থাকা ছবিগুলোর মধ্যে রয়েছে মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজের ‘সম্রাট’, আবদুল মান্নানের ‘পাঙ্কু জামাই’, বুলবুল বিশ্বাসের ‘রাজনীতি’, কালাম কায়সারের ‘মা’ ছবিগুলো।

শাকিবের সঙ্গে জুটি হয়ে কাজ করে অপু চলচ্চিত্রে এরইমধ্যে ১২ বছর পার করছেন। কিন্তু ক্যারিয়ারের এ পর্যায়ে এসে হঠাৎই নিজেকে আড়াল করেছেন তিনি। গত দুমাসে কোনো ছবির কাজ করেননি অপু বিশ্বাস। এমনকি গত ১০-১৫ দিনে কোনো প্রযোজক বা পরিচালক তার সঙ্গে কোনো ছবি নিয়ে আলাপ করতে পারেননি। নানাভাবে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও তাকে পাওয়া যায়নি। তার হঠাৎ এ পরিবর্তনের কারণ হিসেবে অনেকে মনে করছেন শাকিব খানকে। চলচ্চিত্র মহলের অনেকে বলছেন, শাকিবের সঙ্গে নতুন ছবি ‘বসগিরি’তে অভিনয় শুটিং করার কথা ছিল তার। সেভাবে নিজেকে ভিন্ন লুকে সাজাচ্ছিলেন তিনি।

সকাল-বিকাল রুটিন করে জিম করছিলেন। কিন্তু শাকিব খান কলকাতা থেকে ‘শিকারি’ ছবির কাজ করে ফিরে আসার পর অপুর মতের পরিবর্তন পাওয়া যায়। এ প্রসঙ্গে ‘বসগিরি’ ছবির প্রযোজক টপি খান মানবজমিনকে বলেন, সবকিছুই ঠিক ছিল। কিন্তু ছবির শুটিংয়ের আগে অপু বিশ্বাসের সঙ্গে আমার ছবির পরিচালক শামিম আহমেদ রনি যোগাযোগ করলে তিনি ‘না’ বলেছেন। কেন এ ‘না’ তা আমরা বুঝে ওঠতে পারছি না। তাই ছবির জন্য নতুন নায়িকা খোঁজা হচ্ছে। এদিকে গত বৃহস্পতিবার থেকে শাকিব খান ‘বসগিরি’ ছবির কাজ শুরু করেছেন। এ ছবিটি এবারের ঈদুল আজহায় মুক্তি দেয়া হবে।

তাই তিনি টানা ২২শে মে পর্যন্ত এ ছবির জন্য শিডিউল দিয়েছেন। তবে অপুকে নিয়ে শাকিবের ভাষ্য, ছবির চরিত্রের জন্য শারীরিকভাবে এখনও প্রস্তুত হতে পারেননি বলে নিজ থেকেই সরে দাঁড়িয়েছেন অপু। এটি একজন শিল্পীর ভালো দিক। আমি আর অপু বিশ্বাস ঢাকার চলচ্চিত্রে পরীক্ষিত ও জনপ্রিয় জুটি। অপু চাইলে এখনও এই ছবিতে একসঙ্গে কাজ করব। তবে চলচ্চিত্রাঙ্গনের অনেকের মতে, অন্য নায়িকাদের সঙ্গে শাকিবের নিয়মিত কাজ করার বিষয়টি ইদানীং সহজভাবে মেনে নিতে পারছেন না অপু। আর এ কারণেই হয়তো শাকিবের সঙ্গে নতুন ছবিতে কাজ করার বিষয়ে তার মনে অভিমান জন্মেছে।

তারা আরও বলেন, মার্চ থেকে শাকিব কলকাতায় ‘শিকারি’ ছবির শুটিংয়ে ব্যস্ত থাকায় দীর্ঘ অলস সময় কাটাতে হয়েছে অপু বিশ্বাসকে। বিরক্তি কাটাতে বগুড়ায় গ্রামের বাড়ি আর কলকাতায় বোনের বাড়িও ঘুরে আসেন তিনি। বহু নির্মাতার অনুরোধ সত্ত্বেও অন্য নায়কের সঙ্গে তেমন একটা কাজ করেননি অপু। এমনকি যৌথ প্রযোজনার ছবির প্রস্তাবও ফিরিয়ে দিয়েছেন। আর এসব করেছেন তিনি শাকিব খানের জন্য। অপু বিশ্বাস যদি শাকিবের জন্য এত ত্যাগ স্বীকার করেন, তাহলে শাকিব কেন পারবেন না!

শাকিবের সঙ্গে ‘বসগিরি’ ছবিতে অপুর ‘না’ করে দেয়া প্রসঙ্গে আলোচনা করতে গিয়েই এসব বলছেন তারা। এসব আলোচনা থেকেই প্রশ্ন উঠছে- শাকিবের কারণেই কি তাহলে আড়ালে রয়েছেন অপু।