মেইন ম্যেনু

হরভজনের পর এবার বিয়ের পিঁড়িতে রোহিত

ভারতীয় ক্রিকেটাররা একের পর এক বিয়ের পিঁড়িতে বসছেন। কিছুদিন আগেই সুরেশ রায়না দ্বিতীয় ইনিংসে মাঠে নেমে পড়েছেন। বৃহস্পতিবার বিয়ে করলেন হরভজন সিং। সেই বিয়ের পাট চুকতে না চুকতেই আরও একটি বিয়ের খবর। এই বছরের ডিসেম্বরেই ছাদনাতলায় যাচ্ছেন রোহিত শর্মাও।

ঋতিকা সাজেদের সঙ্গে দীর্ঘদিনের প্রেম রোহিতের। তাকেই ঘরণী হিসেবে বেছে নিচ্ছেন রোহিত। ১৩ ডিসেম্বর বিয়ের দিন ঠিক হয়েছে। এপ্রিল মাসেই ঋতিকার সঙ্গে বাগদান হয়েছে রোহিতের।

রীতিমতো অভিনব ছিল সেই বাগদানের অনুষ্ঠান। তখন প্রায় মাঝ রাত। রোহিত শর্মা ডেকে নিলেন নিজের বহুদিনের বান্ধবী রীতিকাকে। একদিনের ক্রিকেটে ভারতের ওপেনিং ব্যাটসম্যানের গাড়ি বান্ধবীকে নিয়ে ছুটতে শুরু করে মুম্বাইয়ের শহরতলির দিকে। আধ ঘন্টা গাড়ি চালিয়ে আসার পর রোহিত যেখানে এলেন সেটা একটা ফাঁকা মাঠ।

বরিভালি স্পোর্টস কমপ্লেক্সের মাঠে এসে রীতিকা তো অবাক। এখানে এত রাতে কেন? সারপ্রাইজটা ওখানেই অপেক্ষা করছিল। পকেট থেকে একটা আংটি ঋতিকার আঙুলে পড়িয়ে দিয়ে রোহিত শর্মা জিজ্ঞেস করলেন আমায় বিয়ে করবে? পাত্রীও হ্যাঁ বলতে দেরী করেননি।

raina3

বাগদানের পর ক্যামেরায় বন্দী হয়েছিলেন রোহিত-ঋতিকা ও তাদের পরিবার। ছবিঃ টাইমস অফ ইন্ডিয়া।

এ প্রসঙ্গে ঋতিকা জানিয়েছিলেন, রোহিতের বিয়ের প্রস্তাবের অভিনব স্টাইলটা কোনও দিন ভুলবেন না। তবে বরিভালি স্পোর্টস কমপ্লেক্সের ফাঁকা মাঠে রোহিত বাগদানের আংটি পড়িয়ে দেওয়ার পেছেন আছে এক অদ্ভুত কারণ। আর তা হলো, এই মাঠেই ১১ বছর বয়সে প্রথম প্রতিযোগীতামূলক ক্রিকেট খেলেন রোহিত শর্মা। আর জীবনের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস শুরুর সিদ্ধান্ত তাই সেই মাঠেই নিলেন রোহিত।

ক্যারিয়ারের শুরুর দিকে বরিভালি স্পোর্টস ক্লাবে রোহিতের সঙ্গে আলাপ হয় ঋতিকার। ছয় বছর ধরে তাদের পরিচয়। রোহিতের খেলা সংক্রান্ত যাবতীয় বিষয়গুলি সামলান ঋতিকা। রোহিতের ম্যানেজার হিসেবেও কাজ করছিলেন এবার বিশ্বকাপের সময়ে। এবার জীবনের ইনিংসেও রোহিতের সঙ্গী হতে চলেছেন তিনি।

rohit sharma

রোহিত-ঋতিকা। ছবিঃ আনন্দ বাজার।

ডিসেম্বরে কোনও আন্তর্জাতিক ম্যাচ না থাকায় দিনটিকে বেছে নিয়েছেন রোহিত। এ প্রসঙ্গে তাদের পরিবারের তরফ থেকে একজন বলেছেন, ‘দিন নিয়ে সমস্যা কেন হবে? সবাই খুশি ওই দিন বিয়ে ঠিক হওয়ায়। আমাদের কাছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল, ওই সময় কোনও ক্রিকেট খেলা নেই। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজও শেষ হয়ে যাবে ৭ ডিসেম্বর। ফলে রোহিতকে কোনও সমস্যাতেই পড়তে হবে না।’

বান্দ্রার পাঁচতারা হোটেলে বিয়ের অনুষ্ঠান হবে। বিয়ে নিয়ে এখন পাত্র ও পাত্রীপক্ষের দারুণ তোড়জোড়। রোহিতের অবশ্য এদিকে তাকানোর সময় নেই। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজের দিকে তিনি তাকিয়ে আছেন।

ভারতীয় দলের সব ক্রিকেটার তো বটেই, শচিন টেন্ডুলকারও আমন্ত্রিত থাকছেন বিয়েতে। তবে যেহেতু পাকিস্তানের সঙ্গে সিরিজ নিয়ে এখনও ধোঁয়াশা রয়েছে, তাই বিয়ের পর মধুচন্দ্রিমায় রোহিত এবং ঋতিকা কোথায় যাবেন, তা এখনও ঠিক করেননি।

48049649.cms

ছবিঃ ইন্ডিয়া টাইমস ফটো গ্যালারি।