মেইন ম্যেনু

হরমোনের ভারসাম্য নিয়ন্ত্রণের ৫টি উপায়?

হরমোনের ভারসাম্য নষ্ট হওয়ার মতো সমস্যার কারণে ওজন বেড়ে যাওয়া, চুল পড়া, ত্বকে রুক্ষতা চলে আসা, দুর্বলতা, অরুচি ও বিষণ্ণতার মতো নানা মারাত্মক শারীরিক অসুস্থতা দেখা দেয়। তাই দেহের হরমোনের ভারসাম্য বজায় রাখা খুবই জরুরী। কিন্তু নিজের ভুলের কারণেই অনেক সময় দেহের হরমোনের ভারসাম্য নষ্ট করে ফেলেন অনেকেই। আজ চলুন জেনে নেয়া যাক দেহের এই হরমোনের ভারসাম্য বজায় রাখার দারুণ কার্যকরী কিছু উপায়।

দেহে হরমোনের ভারসাম্য নিয়ন্ত্রণের ৫টি উপায়ঃ

১) ভিটামিন ডি৩ঃ

ভিটামিন ডি৩ দেহের হরমোনের ভারসাম্য নিয়ন্ত্রণে রাখতে সহায়তা করে। সূর্যের আলো বিশেষ করে ভোরের আলতো আলোতে দেহে ভিটামিন ডি উৎপন্ন হয়। এছাড়াও ডিমের কুসুম, মাছের তেল, কমলার রস ইত্যাদিতেও রয়েছে ভিটামিন ডি৩।

২) ক্যাফেইন কম গ্রহণ করুনঃ

কিছুকিছু ক্ষেত্রে ক্যাফেইন অনেক উপকারী হলেও হরমোনের অনেক সমস্যার জন্য দায়ী এই ক্যাফেইন। হরমোনের ভারসাম্যের জন্য ক্যাফেইন সমৃদ্ধ খাবার খাওয়া কমিয়ে দিন।

৩) পরিমিত বিশ্রাম এবং পর্যাপ্ত ঘুমঃ

বিশ্রাম ও ঘুমকম বা বেশী হলে দেহের হরমোনের ভারসাম্য নষ্ট হয়। কম ঘুম যেমনদেহের হরমোনের জন্য খারাপ তেমন বেশী ঘুমও খারাপ। ভারসাম্য বজায় রাখতে চাইলে প্রতিদিন পর্যাপ্ত ঘুম এবং পরিমিত বিশ্রামের প্রয়োজন।

৪) ব্যায়াম নিয়ন্ত্রণ করুনঃ

যখন ব্যায়াম করা হয় তখন আমাদের দেহে হরমোনের নিঃসরণ হয়, কারণ তখন দেহের গ্ল্যান্ড খুলে যায়। কিন্তু অতিরিক্ত ব্যায়াম করলে হরমোনের অতিরিক্ত নিঃসরণ ঘটে যা হরমোনের ভারসাম্য নষ্ট করে দেয়। দিনে ২০ মিনিট করে সপ্তাহে ৩ দিন ব্যায়ামই যথেষ্ট হরমোনের ভারসাম্য ঠিক রাখার জন্য।

৫) দেহে টক্সিক কসমেটিক ব্যবহার বন্ধ করুনঃ

যেসকল প্রোডাক্টে ডিইএ, প্রপেলিন গ্লাইকল, সোডিয়াম লউরেল সালফেট ও প্যারাবিন রয়েছে তা ব্যবহার বন্ধ করে দিন। কারণ এতে দেহের হরমোনের ভারসাম্য নষ্ট হয়।