মেইন ম্যেনু

‘হলিউডে ভারতীয়রা প্রতিভার দাম পান না’

এই যে শোনা যাচ্ছে প্রিয়াঙ্কা চোপড়া হলিউডে এত সম্মান পাচ্ছেন, এত জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন, সে সবই কি তাহলে মিথ্যা? নায়িকার বক্তব্য থেকে আপাতদৃষ্টিতে সেটা মনে হতেই পারে! নিজের মুখেই তো এবারে মাদ্রিদে ‘আইফা’-র ১৭তম পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে কবুল করেন, ভারতীয় অভিনেতারা হলিউডে প্রতিভার যোগ্য দাম পান না!

তা, প্রিয়াঙ্কার সঙ্গেও কি সেটাই হয়েছে?

এই কূটকচালির বাইরে গিয়ে প্রিয়াঙ্কার মন্তব্য নিয়ে একটু অন্য দিক থেকে ভাবা যেতেই পারে। কথাটা কিন্তু নেহাত মিথ্যা বলেননি ‘গুন্ডে’। অমিতাভ বচ্চন, নাসিরুদ্দিন শাহ, অনিল কাপুর, ইরফান- সবাই হলিউডের ছবিতে দু-একটা দৃশ্যে মুখ দেখানোরই সুযোগ পেয়েছেন, অভিনয়ের নয়। অবশ্য ইরফানের ‘লাইফ অফ পাই’ ছবিটাকে এই তালিকার বাইরে রাখা যেতে পারে!

সে দিক থেকে দেখলে তুলনামূলক ভাবে ভাগ্য ভাল ছিল ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চনের! তিনি গোটা ছবি জুড়ে কাজের সুযোগ পেয়েছিলেন, কিন্তু একঘেয়ে চরিত্রে! ‘ব্রাইড অ্যান্ড প্রেজুডিস’ হোক বা ‘মিসট্রেস অফ স্পাইসেস’- একই রকম চরিত্রের খোলস ছেড়ে বেরিয়ে আসার সুযোগ পাননি বচ্চন-বউমা। সেই কথাটাই ‘আইফা’-র উৎসবে স্পষ্ট করে জানিয়েছেন প্রিয়াঙ্কা।

পিয়াঙ্কা বলেন, অন্য দেশে গিয়ে কাজ করাটা খুবই কঠিন একটা ব্যাপার! কিন্তু আমি সৌভাগ্যবতী, সব সময়েই ভক্তদের সমর্থন আমার সঙ্গে ছিল! তার জন্য আমি কৃতজ্ঞ। তবে, একটা কথা আজ বলতে চাই। ভারতীয় অভিনেতারা হলিউডে কখনই নিজেদের প্রতিভার যোগ্য স্বীকৃতি পাননি। যা পেয়েছেন, তা তাঁদের প্রাপ্যর মাত্র এক শতাংশ! হলিউড ভারতীয় তারাদের সব সময়েই একঘেয়ে চরিত্রে উপস্থাপিত করে!

স্বীকার করতেই হবে, প্রিয়াঙ্কা স্পটলাইটে থাকলেও তার সঙ্গে প্রায় এক ঘটনাই ঘটেছে। ‘কোয়ান্টিকো’-র অ্যালেক্স প্যারিশ আদতে এক ধূসর চরিত্র। তার ভালটা বোঝা যায় না, বরং খারাপটাই রহস্য হয়ে ঘিরে থাকে তাকে। আর, ‘বেওয়াচ’-এর চরিত্রটা তো স্পষ্টাস্পষ্টিই নেতিবাচক!

তবে, আরও একটা ব্যাপার রয়েছে। ‘আইফা’-র উৎসবে হলিউড নিয়ে এমন বিস্ফোরক মন্তব্য করার! এই উৎসবেই তো সালমান খান প্রিয়াঙ্কা চোপড়া আর দীপিকা পাড়ুকোনকে ‘হলিউড ফেরত’ বলে কটাক্ষ করেছিলেন! দীপিকা তার বেশ ভালমতোই জবাব দিয়েছেন, একটু উগ্র ভাবেই! আর স্বভাবত নম্র প্রিয়াঙ্কা উত্তরটা দিলেন নিজের মতো করে! এই যা!