মেইন ম্যেনু

হাইকোর্টের রায় বহাল, লতিফ সিদ্দিকীর ভাগ্য ইসিতে

সাবেক মন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের বহিষ্কৃত নেতা লতিফ সিদ্দিকীর করা আবেদনে হাইকোর্টের রায় বহাল রেখেছেন আপিল বিভাগ। এতে তার সংসদ সদস্যপদ নিয়ে শুনানিতে নির্বাচন কমিশনেই যেতে হচ্ছে।

প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বে আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চ রবিবার এই নির্দেশ দেন।

লতিফ সিদ্দিকীর আইনজীবী জ্যোতির্ময় বড়ুয়া জানান, তারা নির্বাচন কমিশনের শুনানিতে অংশ নিতে যাচ্ছেন। রবিবার ওই শুনানি হওয়ার কথা রয়েছে।

মন্ত্রিসভা ও আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কৃত আব্দুল লতিফ সিদ্দিকীর সংসদ সদস্যপদ বিষয়ে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) শুনানির এখতিয়ার চ্যালেঞ্জ করে দায়ের করা রিটের খারিজ আদেশের বিরুদ্ধে আপিল আবেদনের শুনানিও অনুষ্ঠিত হবে।

গত ২০ আগস্ট নির্বাচন কমিশনের শুনানির এখতিয়ার চ্যালেঞ্জ করে লতিফ সিদ্দিকীর করা রিট আবেদন খারিজ করে দেন হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ।

ওই আদেশের পর রাষ্ট্রপক্ষে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল খোরশেদুল আলম সাংবাদিকদের বলেন, ‘নির্বাচন কমিশন লতিফ সিদ্দিকীকে যে নোটিশ দিয়েছে, তাতে আইনের কোনো বত্যয় ঘটেনি। বিষয়টি মীমাংসা বা নিষ্পত্তির এখতিয়ার নির্বাচন কমিশনের হাতে।

রিট আবেদনকারীর কোনো বক্তব্য থাকলে তিনি তা কমিশনের শুনানির সময় উপস্থাপন করতে পারেন। এসব দিক বিবেচনা করে আদালত রিট আদেনটি সরাসরি খারিজ করে দিয়েছেন।’

এরপর হাইকোর্টের ওই আদেশের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টের চেম্বার আদালতে গিয়ে নির্বাচন কমিশনের নোটিশ স্থগিতের আবেদন করেন লতিফের আইনজীবী ব্যারিস্টার জ্যোতির্ময় বড়ুয়া। বৃহস্পতিবার আপিল বিভাগের চেম্বার বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী আবেদনটি ২৩ অগাস্ট শুনানির জন্য আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে পাঠিয়ে দেন।