মেইন ম্যেনু

হাজিদের টাকা মেরে দেয়া প্রতারক গ্রেপ্তার

পবিত্র হজ পালনের জন্য হাজিদের টাকা নিয়ে প্রতারণার মাধ্যমে তা আত্মসাতের অভিযোগে আল তৈয়বা এন্টারপ্রাইজের মালিক মোয়াল্লেম হাজ্জাদ মাওলানা করম আলী আজাদীকে গ্রেপ্তার করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। একই সঙ্গে বিভিন্ন প্রকার দুর্নীতি মামলায় যমুনা ব্যাংক কর্মকর্তাসহ আরো তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে সংস্থাটি।

বুধবার নোয়াখালী, হবিগঞ্জ, লক্ষীপুর ও কুমিল্লার বিভিন্ন এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। দুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রনব কুমার ভট্টাচার্য্য এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার ‘আল তৈয়বা এন্টারপ্রাইজের’ মালিক মোয়াল্লেম হাজ্জাদ মাওলানা করম আলী আজাদী, হবিগঞ্জের ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেডের কর্মকর্তা আব্দুল মোছাব্বির চৌধুরী, লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ থানার মেসার্স তুর্য্য টেলিকমের মালিক মো. সাইফুল ইসলাম এবং যমুনা ব্যাংক লিমিটেডের কুমিল্লা শাখার ম্যানেজার মো. মোশাররফ হোসেন।

জানা জানায়, পবিত্র হজ পালনের জন্য সৌদি আরবের মক্কায় লোক পাঠানোর কথা বলে টাকা নেয় হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার আল তৈয়বা এন্টারপ্রাইজ নামক এক প্রতিষ্ঠান। কিন্তু হজে লোক না পাঠিয়ে তাদের কাছ থেকে নেয়া ৮ লাখ টাকা আত্মসাৎ করেন প্রতিষ্ঠানটির মালিক হাজ্জাদ মাওলানা করম আলী আজাদী।

অনুসন্ধানে এই প্রতারণার কথা প্রমাণিত হলে গত ৩১ জানুয়ারি হবিগঞ্জের লাখাই থানায় মামলা (নং-২৩) একটি মামলা দায়ের করে দুদক। সেই মামলার আসামি হিসেবে চুনারুঘাট উপজেলা কমপ্লেক্স থেকে আজ তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এছাড়া ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেডের ৪ লাখ ৯৫ হাজার ১৫৬ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয় আব্দুল মোছাব্বির চৌধুরীকে। মো. সাইফুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে পূবালী ব্যাংক লিমিটেডের ১ কোটি ১৭ লাখ আত্মসাতের মামলার আসামি হিসেবে। সেই সঙ্গে গ্রাহকের ৪০ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে গ্রেপ্তার হয়েছেন যমুনা ব্যাংকের কর্মকর্তা মো. মোশাররফ হোসেন।