মেইন ম্যেনু

হাত ছাড়াই হাতের লেখায় প্রথম!

সাত বছরের একটা ছোট্ট শিশু। পড়াশুনায় তার দারুণ উৎসাহ। আর তার হাতের লেখার তো কোনো তুলনাই হয় না। এই সুন্দর হাতের লেখার জন্য সে ৫০ জন প্রতিযোগীকে হারিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় হাতের লেখা পুরস্কার জিতে নিয়েছে। এইটুকু পর্যন্ত সব কিছুই ঠিক ছিল। কিন্তু শুনে অবাক হবেন। যার কথা এতক্ষণ বলছি সেই সাত বছরের ছোট্ট মেয়ে আনাইয়া এলিকের দু`টি হাতই নেই। তাতে কী? দুই বাহুতে পেনসিল ধরেই গোটা গোটা অক্ষর লিখে সবাইকে তাক লাগিয়ে দিয়েছে এলিক।

শুক্রবার বিবিসি অনলাইনের এক খবরে বলা হয়, আনাইয়া এলিক ভার্জিনিয়ার চ্যাসেপিক এলাকায় বাবা-মায়ের সঙ্গে বাস করে। জন্ম থেকেই শারীরিক প্রতিবন্ধী এলিক। তবে হাত না থাকলেও কৃত্রিম হাত ব্যবহার করার ইচ্ছা নেই এলিকের। তার চেয়ে বরং দুই বাহুতে পেনসিল ধরেই লিখতে পারে সে। আর অন্য বাচ্চাদের তুলনায় তার হাতের লেখাও অসাধারণ।

যুক্তরাষ্ট্রে বিশেষ শিক্ষার্থীদের জন্য জাতীয় হাতের লেখা প্রতিযোগিতায় পুরস্কার জিতে নিয়েছে এলিক।

এলিকের লেখা এতটাই ভালো যে হাত আছে এমন শিশুদের লেখার সঙ্গেও তার লেখার তুলনা করা যায় বলে জানিয়েছেন ওই প্রতিযোগিতার আয়োজকরা।