মেইন ম্যেনু

হানিমুনের জন্য চমৎকার ২টি স্থান

নতুন বিয়ে করেছেন, অথচ হানিমুনে কোথায় যাবেন ভেবে পাচ্ছেন না? প্রত্যেক দম্পতিই তাদের মধুযামিনীর অভিজ্ঞতাকে স্মরণীয় করে রাখতে চায়। কেউ কেউ পরে তাদের এই ফেলে আসা দিনগুলো ভেবে সুখ অনুভব করেন। আর বিয়ের পরে মধুযামিনী বা হানিমুনের কয়েক মাস বা সপ্তাহ নব দম্পতি জন্য সবচেয়ে বিশেষ সময়। আর তাই হানিমুনের স্থানটিও হওয়া চাই পছন্দমতো।

বর্তমানে পৃথিবী জুরেও হানিমুনের জন্য অনেক সুন্দর সুন্দর জায়গা ও স্পট রয়েছে যা আপনার মধুযামিনীকে অনেক বেশি আনন্দদায়ক ও প্রেমময় করে তুলতে পারে। কিন্তু আমি আপনাদের আজ পৃথিবীর এমন দুটি সুন্দর ও চমৎকার যায়গার কথা বলবো যা আপনার হানিমুন ও ভ্রমণকে করবে অনেক বেশি প্রেমময় ও স্মরণীয়।

11407307_662

প্যারিস:
পৃথিবীর সবচেয়ে রোমান্টিক শহর হিসেবে বিবেচনা করা হয় ফ্রান্সের প্যারিস শহরকে। প্যারিসের হোটেল গুলোতে আপনি অনেক অফায় খুজে পেতে পাড়েন। এমনকি সেখানে আপনি খুব সহজেই পেয়ে যেতে পাড়েন আপনার মনের মত হোটেল বা মোটেল। এখানে আপনি পাবেন আশ্চর্যজনক ও দর্শনীয় অনেক কিছু যা পৃথিবীর আর কথাও পাওয়া সম্ভব না। শিল্প ও ইতিহাস প্রেমীদের জন্য এর চাইতে চমকপ্রদ আর কোন স্থান হতেই পারে না। এখানে স্বাচ্ছন্দে একান্ত ভাবে কাটাতে পারেন আপানর মধুযামিনী।

353658-venice-wallpaper-hd

ভেনিস:
প্রিয় মধুযামিনী গন্তব্যস্থল তালিকায় অনেক উপরে দেখতে হবে ইতালির ভেনিসকে। শহরের খালগুলো তাদের সৌন্দর্যের জন্য বিশ্বব্যপি পরিচিত, যা দম্পতিদের জন্য আকর্শনের কেন্দ্র বিদুতে পরিণত হয়েছে। সারা পৃথিবী হতে দম্পতিরা এখানে মধুচন্দ্রিমা যাপন করতে আসে। ভেনিস এর অন্যতম আকর্শন হচ্ছে ভেনিসের বৈশিষ্ট্যযুক্ত সিনেমা। এসব কারনে ইতালির ভেনিস নগরি দম্পতিদের জন্য এত বেশি আকর্শনীয়। বালুকাময় সৈকত এবং স্পন্দনশীল ইতিহাস বিশ্বের অনেক দম্পতিদের জন্য একটি রোমান্টিক ছুটি জন্য একটি শীর্ষস্থনীয় প্রিয় স্থান বলে মনে করা হয়।