মেইন ম্যেনু

হার্টের সুস্থতা নিয়ে আপনি কি সন্দিহান?

হার্টের সুস্থতা একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। হার্টের সুস্থতা নিয়ে আপনি কি সন্দিহান? বুকে সামান্য চিনচিন করলেও আপনাকে উদ্বিগ্ন দেখায়? এই বুঝি হার্ট গেল! বা, সামান্য ছুটোছুটিতেই হাঁপিয়ে যাচ্ছেন? ঘেমেনেয়ে একশা! ডাক্তারের কাছে তো যাবেনই। তার আগে ঘরে নিজেই পরীক্ষা করে দেখে নিতে পারেন আপনার হার্ট কী অবস্থায় রয়েছে। এমনকি যারা নিজেদের যথেষ্ট ফিট বলে মনে করেন, তারাও ইচ্ছে করলে দেখে নিতে পারেন। কী করবেন? তেমন কিছুই না, সামান্য একটা পরীক্ষা।

মেঝেতে বসে পা দুটো পাশাপাশি সমান্তরালভাবে রেখে সোজা করে সামনে মেলে দিন। এই অবস্থায় দু-হাত দিয়ে পায়ের আঙুল ছোঁয়ার চেষ্টা করুন। পায়ে টান লাগলেও হাঁটু থেকে ভাঁজ করে ফেলবেন না। যারা যত সহজে পায়ের আঙুল ছুঁতে পারবেন, তাদের হার্টের অবস্থা তত ভালো। আর যারা চেষ্টা করেও ছুঁতে পারবেন না, ধরে নিতে পারেন হার্ট খুব সুস্থ নেই। তাই হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি এড়াতে, দেরি না-করে, তাদের উচিত ডাক্তারের পরমর্শ নেয়া।

সম্প্রতি এক গবেষণা রিপোর্টে বলা হয়েছে, যাদের শরীর নমনীয় এবং সহজে পায়ের আঙুল ছুঁতে পারেন, তাদের হার্ট শক্তপোক্তই শুধু নয়, শরীরের মতোই নমনীয় রয়েছে। শরীরের নমনীয়তা কমে এলে, হার্টও দুর্বল হয়ে পড়ে।

আমেরিকার উত্তর টেক্সাসে ৫২৬ জনের ওপর এই গবেষণা চালানো হয়। যাদের বয়স ২০ থেকে ৮৩-র মধ্যে। সমীক্ষায় অংশগ্রহণকারীরা পায়ের আঙুল ছোঁয়ার সময় তাদের রক্তচাপ ছাড়াও ধমনী ও হার্টের কার্যকলাপ ভালোভাবে পর্যবেক্ষণ করা হয়।

গবেষকদের দাবি, তারা দেখেছেন যাদের হার্টে সমস্যা রয়েছে, তারা কিছুতেই পায়ের আঙুল ছুঁতে পারবেন না। অর্থাত্‍‌ শরীরের নমনীয়তার সঙ্গে ধমনীর স্থিতিস্থাপকতার সম্পর্কের বিষয়টি তারা জানতে পেরেছেন এই গবেষণায়। গবেষকদের পরামর্শ, যারা পায়ের আঙুল ছুঁতে পারবেন না, এখনই সতর্ক হোন। ভালো কার্ডিওলজিস্টকে দিয়ে হার্ট পরীক্ষা করিয়ে নিন।