মেইন ম্যেনু

হাসনাতের মোবাইলে ছিল জঙ্গিদের বিশেষ অ্যাপ !

গুলশানের হলি আর্টিজানে হামলার সময় নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক হাসনাত করিমের মোবাইলে ডাউনলোড করা হয় একটি বিশেষ অ্যাপ। বৃহস্পতিবার হাসনাত করিম ও তাহমিদের রিমান্ড আবেদনে জানানো হয় জঙ্গিরা ব্যবহার করে বিশেষ অ্যাপটি। অ্যাপটির নাম ‘উইকার অ্যাপ’ (Wickr)।

রিমান্ড আবেদনে বলা হয়, ‘হলি আর্টিজানে হামলা হয় রাত ৮ টা ৪৪ মিনিটে এবং হাসনাত করিমের মোবাইলে অ্যাপটি ডাউনলোড করা হয় ৮টা ৫৭ মিনিটে। এই অ্যাপটি ব্যবহার করে সাধারণত জঙ্গিরা যোগাযোগ স্থাপন করে থাকে। এ বিষয়ে বিস্তারিত জানার জন্য তথা জঙ্গিরা কী ধরনের তথ্য আদান-প্রদান করেছিল, ঠিক কী কারণে অল্প সময়ের জন্য হাসনাত এই অ্যাপ ডাউনলোড করেছিলেন, সে বিষয়ে জানার জন্য তাকে রিমান্ডে নেওয়া প্রয়োজন।’

যেভাবে কাজ করে অ্যাপটি:
উইকার একটি যোগাযোগ অ্যাপ। ব্যবহারকারীর পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ থাকে এটিতে। যে ডিভাইসে এটি ব্যবহার করা হয় সেই ডিভাইস থেকে সব ধরনের মেসেজ, ছবি ও ভিডিও কনটেন্ট মুছে ফেলা যায়।

ফলে এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপ্টেড টেক্সট, ভিডিও, ছবি এবং ভয়েস- প্রেরক তার মতো করে পাঠাতে পারেন।

গত ১ জুলাই রাজধানীর গুলশানে ভয়াবহ জঙ্গি হামলার সময় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী নির্দেশ দিলেও তাৎক্ষণিকভাবে ইন্টারনেট ও টেলিকম নেটওয়ার্ক সেবা বন্ধ করা সম্ভব হয়নি। কেন্দ্রীয়ভাবে রিয়েল টাইমে টেলিকম নেটওয়ার্ক বন্ধ করার প্রযুক্তি না থাকায় এ সমস্যা হয়েছিল বলে জানিয়েছিলেন ইন্টারনেট ও টেলিকম সেবাদাতা একাধিক প্রতিষ্ঠানের শীর্ষ কর্মকর্তারা।

এরআগে বুধবার রাতে হাসনাতকে গুলশান ও তাহমিদকে বসুন্ধরা এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। বৃহস্পতিবার আদালত তাদের ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন মঞ্জুর করে। তারা দুজনই হলি আর্টিজানে অভিযানের আগেই মুক্তি পান।