মেইন ম্যেনু

হিলারি-স্যান্ডার্স বাগযুদ্ধ

আগামী মঙ্গলবার নিউ ইয়র্ক অঙ্গরাজ্যে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে প্রেসিডেন্ট পদে মনোনয়ন প্রত্যাশী ডেমোক্র্যাট দলের প্রাইমারী। এর আগে বৃহস্পতিবার শেষবারের মতো মুখোমুখি হলেন দলের দুই প্রার্থী-হিলারি ক্লিনটন ও বার্নি স্যান্ডার্স।

ব্রুকলিনে অনুষ্ঠিত বিতর্কে ছিলো তাদের দুজনের প্রচণ্ড বাগযুদ্ধ। ওয়ালস্ট্রিটের ব্যাংক, আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ন্ত্রণ আইন ও ন্যূনতম মজুরি ছিলো তাদের বিতর্কের বিষয়।তবে কোনো প্রার্থীই রিপাবলিকানদের মতো ব্যক্তিগত আক্রমণ করেননি।

সর্বশেষ গত আটটি প্রাইমারির সাতটিতেই বিজয়ী হয়েছেন স্যান্ডার্স। তবে এরপরেও মনোনয়ন দৌড়ে এগিয়ে রয়েছেন হিলারি।

স্যান্ডার্স বলেন, ‘পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটনের প্রেসিডেন্ট হওয়ার মতো অভিজ্ঞতা ও বুদ্ধিমত্তা কি আছে? অবশ্যই তার সে যোগ্যতা রয়েছে। তবে তার বিচারবুদ্ধির ওপর আমার প্রশ্ন রয়েছে।’

স্যান্ডার্স বিতর্কে বারবার ওয়ালস্ট্রিটের ব্যাকগুলোর সঙ্গে হিলারি সম্পর্কের বিষয়টি তুলে আনেন। বিশেষ করে বড় ব্যাংকগুলো থেকে ভাষণ দিয়ে হিলারি যে মোটা অর্থ কামিয়েছেন তার দিকেই ইঙ্গিত দেন তিনি। একই সঙ্গে ইরাক যুদ্ধে হিলারির সমর্থণ নিয়েও সমালোচনা করেন স্যান্ডার্স।

অন্যদিকে হিলারি বলেন, গত সপ্তাহে নিউইয়র্কের ডেইলি নিউজ পত্রিকাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে স্যান্ডার্স বড় ব্যাংকগুলোকে কয়েক খণ্ডে ভাগ করার প্রস্তাব দিয়েছিলেন। কিন্তু সেটি কীভাবে অর্জিত হবে, সে কথা ভালোভাবে ব্যাখ্যা করেননি।

তিনি বলেন, সমস্যা চিহ্নিত করা সহজ কিন্তু এর সমাধান ভিন্ন বিষয়।

এছাড়া হিলারি স্যান্ডার্সের আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ন্ত্রণ নিয়ে স্যান্ডার্সের নীতিরও সমালোচনা করেন হিলারি। তিনি বলেন, স্যান্ডার্স এক সময় আগ্নেয়াস্ত্র বিক্রেতাদের দায়মুক্তির পক্ষে অবস্থান নিয়েছিলেন।