মেইন ম্যেনু

হৃতিক বললেন ‘রাবিশ’

স্টপ রাইটিং রাবিশ!’ এ কথা বেশ চটেমটেই লিখেছেন বলিউড তারকা হৃতিক রোশন। আর লিখেছেন নিজের টুইটারে। কঙ্গনা রনৌতের সঙ্গে বাগদানের খবর প্রসঙ্গে মুখ খুলতে গিয়ে এই মন্তব্য তাঁর। টুইটারে তাঁর ভেরিফায়েড অ্যাকাউন্ট থেকে এ কথা টুইট করেছেন হৃতিক।

কঙ্গনা রনৌত আর হৃতিক রোশনের সম্পর্ক নিয়ে উকিল নোটিশের লড়াই চলাকালে বলিউডের সংবাদমাধ্যম বলিউড লাইফ ছেড়ে দেয় এই বাগদানের খবর। খবরের তথ্য হচ্ছে, ২০১৪ সালে বাগদান হয়েছিল হৃতিক রোশন ও কঙ্গনা রনৌতের। বাগদানের পুরো বিষয়টিই নাকি হয়েছিল খুব গোপনে! কাউকে জানানো হয়নি। এমনকি কোনো সংবাদ মাধ্যমেও তা আসেনি! সম্প্রতি কঙ্গনার ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র এমনটাই দাবি করেছে।
এর মাধ্যমে হৃতিক-কঙ্গনার গোপন প্রেমের বিষয়টি বাইরে চলে আসে। কিন্তু বাস্তবতা হচ্ছে, ঘটনা ঘটল তখনই, যখন দুজনে দুজনের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নিতে চলেছেন! এরই মধ্য দিয়ে উঠে আসছে দুজনের অনেক অজানা গল্প।

কঙ্গনার আইনি নোটিশ থেকে জানা গেছে, সুজানের সঙ্গে বিয়ের বন্ধনে আবদ্ধ থাকার পরেও হৃতিক গোপনে সম্পর্ক রেখেছিলেন কঙ্গনার সঙ্গে! অনেকেই বলছেন, তবে কি এই বিষয়টা নিয়েই দুজনের সম্পর্কের টানাটানি শুরু?

মুম্বাই মিরর পত্রিকা জানিয়েছে, দুজনের মধ্যে যে প্রেমের সম্পর্ক ছিল; সেটা কেউ কেউ জানতেন। কিন্তু তাঁরা যে গোপনে বাগদানটাও সেরে ফেলেছিলেন! তা একরকম অজানাই ছিল।

বিষয়টি অজানাই থেকে যেত, যদি না কঙ্গনার এক ঘনিষ্ঠ বন্ধু এ বোমাটি ফাটাতেন! তিনি জানান, ২০১৪ সালে নাকি কঙ্গনাকে বিয়ের প্রস্তাব দেন হৃতিক! সেই বন্ধুকে নাকি কঙ্গনাই জানিয়েছিলেন যে সুজানকে আনুষ্ঠানিকভাবে বিদায় জানানোর পরই কঙ্গনাকে বিয়ে করার প্রস্তাব দেন হৃতিক। প্রস্তাবটি শুনে যেন আনন্দে শূন্যে ভাসছিলেন কঙ্গনা! তাও কী যে-সে জায়গায়? প্রস্তাবটি নাকি হৃতিক দিয়েছিলেন ‘ভালোবাসার নগর’খ্যাত প্যারিসে!

যা হোক, হৃতিক-কঙ্গনা সম্পর্কের ছাড়াছাড়ির প্রসঙ্গে কঙ্গনার ঘনিষ্ঠ সূত্রটি জানিয়েছে, ‘ব্যাং ব্যাং’ ছবির দৃশ্যধারণের কাজ থামিয়ে রেখে ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহে হৃতিক কঙ্গনার সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দেন। কঙ্গনা তখন ছুটিতে নিউইয়র্কে। সেখান থেকেই হৃতিকের সঙ্গে ‘ব্যাং ব্যাং’ ছবির সহশিল্পী ক্যাটরিনা কাইফের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতার কথা জানতে পারেন তিনি। এ বিষয়ে জানতে চাইলে ক্যাটরিনার সঙ্গে ঘনিষ্ঠতার বিষয়টি স্বীকার করে হৃতিক জানতে চান, কঙ্গনার সঙ্গে তাঁর বাগদানের বিষয়টি কেউ জেনেছে কি না। আর যখন কঙ্গনা তাঁকে জানান যে তিনি তাঁর পরিবারকে বিষয়টি জানিয়েছেন। প্রায় সঙ্গে সঙ্গে হৃতিক তাঁকে জানিয়ে দেন, আসলে কঙ্গনা তাঁকে ভুল বুঝেছেন! এমন কিছুই নাকি তিনি বোঝাতে চাননি!

অবশ্য এ পর্যন্ত বিষয়টা নিয়ে কেবল কঙ্গনার আইনি নোটিশ আর তাঁর ঘনিষ্ঠ সূত্রটির বরাতেই খবর প্রকাশিত হয়েছে।