মেইন ম্যেনু

১টি আনারসের দাম ৯ লাখ ৩০ হাজার টাকা!

নানা ফলের নানা রকম দাম, কিন্তু কখনো কি শুনেছেন এক ফলের দাম দেড় লাখ টাকা? না শুনলেও শুনুন এবার সেই ফলের দাম। লক্ষ্মীপূজায় ফলের বাজারে হাত দিয়ে দাম শুনে ছেঁকা লেগেছে ক্রেতাদের। ফলটির নাম বাবা। বাবা ছাড়াও রয়েছে দুনিয়ার সেরা আরো চার দামি ফল। জিনিউজের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা গেছে। ‌

১) এগ অফ দ্য সান ম্যাঙ্গোস : এই প্রজাতির জোড়া ফলের দাম ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় দেড় লাখ টাকা। জাপানে এই ফলের সমাদর এতই হাতেগোনা যে এই ফল কিনতে দোকানের বাইরে ভিড় জমায়। সারা বছরের মধ্যে মাত্র ১৫দিন বিক্রি হয় এই ফল।

২) রুবি রোমান আঙুর : এই আঙুরের এক গোছার দাম ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় আড়াই লাখ টাকা। দেখতে অনেকটা পিংপং বলের মত। পাওয়া যায় একমাত্র জাপানের ইসিকোয়ায়। স্বাদ এতটাই মিষ্টি, আর সুন্দর যে কেউ আবার খেতে শুরু করলে থামতে চায় না। তবে এত দামি যে খুব কম লোকের সৌভাগ্য হয়েছে রুবি রোমান আঙুর খাওয়ার।

৩) ডেনসুকে তরমুজ : এই প্রজাতির একটা তরমুজের দাম ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ৩ লাখ ৭৫ হাজার টাকা । একটা তরমুজের দাম দিয়ে কিনে ফেলা যায় দারুণ একটা গাড়ি। তবু ভাবছেন তো কেন কিনবেন এই তরমুজ। তাহলে শুনুন এই প্রজাতির তরমুজের গুণ। এতে অনেক রকম রোগ দূর হয় আর স্বাদ! সে তো কথাই নেই। জাপানের হোকাইডো দ্বীপে একমাত্র চাষ করা হয় এই তরমুজ। বছরে মাত্র হাজার দুয়েক হয় এই তরমুজ। বিক্রি হয় নিলামের মাধ্যমে। মাত্র ১০০ জন মানুষই এই তরমুজ কিনতে পারেন।

৪) ইউবারি রাজা তরমুজ : এই প্রজাতির একটা তরমুজের দাম ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ৭ লাখ ৪৫ হাজার টাকা। জাপানের হোক্কাইডু দ্বীপে চাষ হয় এই তরমুজের। বিয়ে বাড়িতে গিফট হিসেবে দেশের ধনী ব্যক্তিরা ইউবারি রাজা তরমুজ দেন। জাপানের তাবড় তাবড় শিল্পপতিরা দেবতার কাছেও এই তরমুজ উত্‍সর্গ করেন।

৫) লস্ট গার্ডেনের আনারস : একটা আনারসের দাম ৯ লাখ ৩০ হাজার টাকা। গ্রেট ব্রিটেনে চাষ হয় এই লস্ট গার্ডন আনারস। প্রায় দু’বছর নিরলস পরিশ্রমের পর চাষ হয় এই আনারসের। গরমে কড়া নজরদারির মধ্যে তৈরি হয় এই তরমুজ। নিলামে উঠে বিক্রি হয়।