মেইন ম্যেনু

‘১লাখ রুপিতে স্ত্রীকে বিক্রি করব, আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন’

ভারতের মধ্য প্রদেশের খারগোন জেলার ৩০ বছরের এক ব্যক্তির ফেসবুক পোস্ট নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়েছে। ফেসবুকে এক স্ট্যাটাস আপডেটে তিনি লিখেছেন, ঋণ পরিশোধের জন্য এক লাখ রুপিতে নিজের স্ত্রীকে বিক্রি করে দিতে চান।

ফেসবুকে এ পোস্ট দেওয়ার পর স্বামী দিলিপ মালির বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেছেন। ভারতীয় দণ্ডবিধির (আইপিসি) ৫০৯ ধারায় পুলিশ মামলাটি গ্রহণ করেছে। অ্যারোড্রোম পুলিশ থানার এক কর্মকর্তা সোমবার মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। ওই স্বামীকে গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত আছে বলে জানায় পুলিশ।

হিন্দিতে লেখা ওই ফেসবুক পোস্টে দিলিপ তার স্ত্রী ও দুই বছরের মেয়ের ছবিও যুক্ত করেন। পোস্টে নিজের মোবাইল নম্বরও উল্লেখ করে আগ্রহীদের তার সঙ্গে যোগাযোগ করতেও বলেন। দিলিপ লিখেছেন, আমি যেসব মানুষের কাছ থেকে ঋণ নিয়েছি তাদের অর্থ শোধ করতে চাই। তাই আমি ১ লাখ রুপিতে স্ত্রীকে বিক্রি করছি। যদি কেউ তাকে কিনতে চান তাহলে আমার মোবাইল নম্বরে যোগাযোগ করতে পারেন।

রবিবার এক আত্মীয়ের মাধ্যমে বিষয়টি জানতে পারেন দিলিপের স্ত্রী। এরপরই তিনি থানায় মামলা করেন। মামলায় তার ও পরিবারের সদস্যদের নিয়ে আপত্তিকর ও অপমানজনক বক্তব্য ফেসবুকে পোস্ট করায় এ মামলা করেন দিলিপের স্ত্রী।

তিন বছর আগে তাদের বিয়ে হয়। বিয়ের পর ওই দম্পতি ইন্দোরে বসবাস শুরু করেন। এখাইনেই দিলিপ একাধিক মানুষের কাছ থেকে ঋণ করেন। কিন্তু এখনও তিনি তা শোধ করতে পারেননি। ঋণদাতারা অর্থ ফেরত দেওয়ার জন্য চাপ দিচ্ছে। ওই নারী জানান, ঋণদাতাদের ভয়ে দিলিপ পালিয়ে গ্রামের বাড়িতে বসবাস করছেন।

পুলিশ কর্মকর্তা জানান, ওই নারী তার মেয়েকে নিয়ে ভাড়া বাসা ছেড়ে নিজের বাপের বাড়িতে বসবাস করছেন। সূত্র: এনডিটিভি।



« (পূর্বের সংবাদ)