মেইন ম্যেনু

১০ থেকে ১৭ জুন সূর্য উঠবে না, গুজব নাকি সত্য

বাংলাদেশের কিছু কিছু তথাকথিত সংবাদ মাধ্যম কয়েকদিন ধরে একটা গুজব ছড়চ্ছে যে জুন মাসের ১০ তারিখ থেকে ১৭ তারিখ পর্যন্ত কোন সূর্য উঠবে না। পুরো পৃথিবী থাকবে অন্ধকারাচ্ছন্ন। আমেরিকার মহাকাশ গবেষনা সংস্থা- নাসা নাকি এমন একটি তথ্য জানিয়েছে। এটি একটি সম্পূর্ণ গুজব এবং নাসা এমন কোন কথা কখনো বলেনি।

আসুন দেখে নেই কি কি কারনে সূর্য না উঠতে পারে

– সূর্যের সকল জ্বালানি শেষ হয়ে যায় যদি
– পৃথিবী যদি তার ঘূর্ণন বন্ধ করে দেয়
– আপনি এমন কোন জায়গায় বসবাস করেন যেখানে বছরে নির্দিষ্ট সময় সূর্য দেখা যায় না
– কোন কারনে সূর্য মেঘ, ধূলি, ধূলিঝড় এমন কিছুর আড়ালে চলে যায় যদি

শেষ ২ টি কারনের একটু যৌক্তিকতা থাকলেও সেটাকে সূর্য না উঠা বলে না। সেটা সাময়িক সময়ের জন্য সূর্য আড়ালে চলে যায়। উত্তর মেরুর দেশগুলো যেমন ফিনল্যান্ড, নরওয়ে, রাশিয়ার একটি অংশে বছরের ৬ মাস সূর্য দেখা যায় না কিন্তু আমাদের গোধূলির মত আলো থাকে।

প্রথম ২ টি কারন ঘটলেই কেবলমাত্র এই সমস্ত ফালতু সংবাদ সত্য হবে যা ঘটার কোন সম্ভাবনাই নেই। এই প্রথম ২ টি কারনের ১ টি ঘটা মানেই পৃথিবী ও সৌরজগৎ ধ্বংস হয়ে যাওয়া। আশা করা যায় সূর্য এখনো ৫ বিলিয়ন বছর বা ৫০০ কোটি বছর তার কার্যক্রম সক্রিয় রাখবে। ইতিমধ্যেই সূর্য ৪ বিলিয়ন বা ৪০০ কোটি বছর পার করে এসেছে।

এই হোয়াক্স শুধুমাত্র বাংলাদেশে ছড়াচ্ছে। এমন হোয়াক্স এর আগেও হয়েছে। এমনকি মায়ান সভ্যতার ক্যালেন্ডার অনুযায়ী ২০১২ সালের ডিসেম্বরে পৃথিবী ধ্বংস হয়ে যাবে বলেও গুজব ছড়ানো হয়েছিল। প্রতি বছরই ২ চাঁদ দেখা যাওয়ার গুজব ছড়ানো হয়। এ সমস্ত মিথ্যা সংবাদে বিভ্রান্ত হবেন না।