মেইন ম্যেনু

১১ জন সেলিব্রিটি, যাঁরা বিভিন্ন সময়ে চুরির শিকার হয়েছেন…

সম্প্রতি অর্পিতা খান এব‌ং আয়ুষ শর্মার বাড়িতে সিঁধ কেটেছে চোর। বাইরে ছুটি কাটিয়ে ফিরে এসে, তাঁরা দেখেন যে সব মিলিয়ে প্রায় ৩ লক্ষ ২৫ হাজার টাকার জিনিস চুরি গিয়েছে। এই তারকা দম্পতি তাঁদের বাড়ির পরিচারিকাকে সন্দেহের তালিকায় রেখেছেন। ঘটনার পর থেকেই পরিচারিকা নিখোঁজ।

৯০-এর দশকের অন্যতম সেরা অভিনেত্রী ভাগ্যশ্রী পট্টবর্ধনের বাড়িতেও চুরির ঘটনা ঘটেছে। ভাগ্যশ্রীর বাড়িতে তাঁর শ্বশুর-শাশুরির অনুপস্থিতিতে তাঁর ফ্ল্যাট থেকে প্রায় ২৫ লক্ষ টাকা চুরির হয়েছিল। তার পর থেকেই বাড়ির পরিচারককে খুঁজে পাওয়া যায়নি। স্বভাবতই তাকে অভিযুক্ত বলেই সন্দেহ করা হয়। আজও সেই চুরির ঘটনার কথা মনে পড়লে ভাগ্যশ্রী শিহরিত হন।

অভিনেত্রী দেবিনা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে যে ঘটনাটি ঘটে তা আর পাঁচটি ঘটনার থেকে একেবারেই আলাদা। দেবিনা তাঁর স্পট বয়ের জন্য অপেক্ষা করছিলেন, যার কাছ থেকে তাঁর বেশকিছু জিনিস নেওয়ার ছিল। কিন্তু সেই স্পট বয় আর ফিরে আসেনি। এইভাবে দেবিনা তাঁর একটি সোনার আংটি, একাধিক এটিএম কার্ড, ৩০০০ টাকা এবং কিছু দামী কসমেটিক্স-সহ ব্যাগটিও হারিয়ে ফেলেন। এর জন্য থানায় অভিযোগ দায়ের করেও কোনও লাভ হয়নি।

গত ২ জুলাই অভিনেত্রী ‘ক্ষিতি যোগ’-এর গাড়ি চুরি হয়ে গিয়েছিল একেবারে তাঁর বাড়ির সামনে থেকে। আগের দিন বাড়ির সামনে গাড়িটি পার্ক করে রেখেছিলেন। পরের দিন শ্যুটিং-এ বেরোতে গিয়ে দেখেন তাঁর গাড়ি আর নেই। এমন আকস্মিকভাবে গাড়ি চুরি যাওয়ায় তিনি পুলিশের কাছে অভিযোগও দায়ের করেন কিন্তু গাড়ির হদিশ মেলেনি।

জনপ্রিয় টেলিভিশন অভিনেত্রী মোনাজ কোনও চুরির ঘটনার শিকার না হলেও, একবার একজন অটোরিক্সা চালক তাঁকে আঘাত করেছিল। ঘটনাটি ঘটে গোরেগাঁও ফিল্মসিটির সিগনালের কাছে। রাস্তা পার হওয়ার জন্য সিগন্যাল সবুজ হওয়ার অপেক্ষা করছিলেন মোনাজ। এমন সময়ে একটি অটোরিক্সা চালক তাঁকে আঘাত করে। মোনাজের কথায়, তাঁর হাত থেকে জিনিস ছিনিয়ে নেওয়ার উদ্দেশ্য ছিল সেই অটোরিক্সা চালকের। সেটা না করতে পেরেই এমন আচরণ করে সে।

মুম্বইয়ের অন্যতম পবিত্র স্থান ‘সিদ্ধিবিনায়ক’ মন্দির দর্শনে যাওয়ার সময়ে অভিনেত্রী পূজা পিহাল চুরির ঘটনার শিকার হন। মন্দিরের পাশে গাড়ি থামিয়ে বন্ধুদের সঙ্গে প্রবেশ করেন পূজা। ফিরে এসে দেখেন তাঁর গাড়ির কাঁচ ভাঙা এবং গাড়ির ভিতর থেকে সমস্ত জিনিস উধাও। গাড়িতে ছিল তাঁর দু’টি নতুন মোবাইল ফোন, ১২০০০ টাকা, ড্রাইভিং লাইসেন্স, চাবি এবং তাঁর পছন্দের কানের দুল। এছাড়া চোর খুলে নিয়েছিল গাড়ির স্টিরিও।

জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘উত্তরণ’-খ্যাত সৃজিতা দে-কে একবার কিছু দুষ্কৃতী আক্রমণ করেছিল। ঘটনাটি ঘটে ওয়েস্টার্ন এক্সপ্রেস হাইওয়ে-তে। অভিনেত্রী সৃজিতা তাঁর বান্ধবীর সঙ্গে একটি ধাবায় নৈশভোজ সারতে গিয়েছিলেন। এমন সময়ে কিছু দুষ্কৃতী তাঁর কাছ থেকে মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়। তিনি থানায় অভিযোগও দায়ের করলেও পুলিশ কাউকেই গ্রেফতার করতে পারেনি।

গোরেগাঁও ফিল্মসিটিতে শ্যুটিং করার সময়ে চুরির ঘটনা ঘটেছিল মডেল ও অভিনেত্রী সোনাল ভেঙ্গুরলেকর-এর সঙ্গে। সোনাল এক অজ্ঞাতপরিচিত লোককে তাঁর মেকআপ রুমে দেখেন এবং সঙ্গে সঙ্গে সেই ব্যক্তিকে ঘরে বন্ধ করে ফেলেন। এর পরেই সেই ব্যক্তিকে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়। ধন্যি মেয়ে বটে সোনাল! চুরিটা শেষমেশ হয়নি।

‘জন্নত’-খ্যাত মডেল ও অভিনেত্রী সোনাল চৌহান-এর সঙ্গে ঘটেছিল এক বড় রকমের চুরির ঘটনা। গ্রেটার নয়ডায় তাঁর বাড়ি থেকে গয়না এবং টাকা-সহ ৪০ লক্ষ টাকার জিনিস চুরি গিয়েছিল। শুধু তাই নয়, চুরি গিয়েছিল ৩ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা মূল্যের একটি মুকুটও, যা তিনি জিতেছিলেন ‘মিস ওয়র্ল্ড ট্যুরিজম’-এ। থানায় এফআইআর-ও করেন তিনি।

বাংলো থেকে একটি হিরের নেকলেস উধাও হয়ে যাওয়ায় জুহু থানায় অভিযোগ দায়ের করেছিলেন অভিনেত্রী সোনম কপূর। একটি পার্টিতে তিনি ওই নেকলেসটি পরে যান। ভোররাতে পার্টি থেকে ফিরে নেকলেসটি নিজের ড্রয়ারে রেখেছিলেন তিনি। আর তার পর থেকেই নেকলেসটির আর কোনও হদিশ নেই। যদিও কাউকেই সন্দেহের তালিকায় রাখেননি তিনি।

‘কসৌটি জিন্দেগি কি’র কমলিকাকে মনে আছে? কমলিকা ওরফে উর্বশী ঢোলাকিয়াও চুরির শিকার হয়েছিলেন। বন্ধুদের সঙ্গে একটি পাঁচতারা হোটেলে নৈশভোজ সেরে বাড়ি ফিরে তিনি খেয়াল করেন নগদ কিছু টাকা তাঁর ব্যাগে নেই। এজন্য বান্দ্রা থানাতে অভিযোগও দায়ের করেন বিগ বস সিজন ৬-এর এই বিজেতা।