মেইন ম্যেনু

১৩০০ বছরের পুরনো এই হোটেল সম্পর্কে জানলে সত্যিই অবাক হবেন!

পাহাড়, জঙ্গলে ঘেরা নিস্তব্ধ প্রান্তর। মাঝের একফালি উপত্যকায় মাথা তুলে হাজার বছরের ইতিহাস বুকে নিয়ে দাঁড়িয়ে রয়েছে পৃথিবীর প্রাচীনতম হোটেল নিশিয়ামা অনসেন কেইয়ুনকান। জাপানের ইয়ামানশি পারফেকচার প্রদেশে অবস্থিত এই হোটেল। তাহলে আসুন এক ঝলকে জেনে নেয় যাক পৃথিবীর সবচেয়ে পুরনো হোটেলটির কিছু অজানা কিছু বিষয়।

১. ৭০৫ খ্রিস্টাব্দে অর্থাৎ আজ থেকে ১,৩১১ বছর আগে তৈরি হয়েছিল এই হোটেলটি।

২. ৫২ প্রজন্ম ধরে এক জাপানি পরিবার নিশিয়ামা অনসেন কেইয়ুনকানের মালিক।

৩. গিনেসবুক অব ওয়ার্লড রেকর্ডস-এ পৃথিবীর প্রাচীনতম হোটেল হিসাবে নাম তুলেছে নিশিয়ামা।

৪. তবে নিশিয়ামার জনপ্রিয়তার মূল কারণ গরম পানির ঝর্না। ছ’টি প্রাকৃতিক গরম পানির ঝর্না রয়েছে এই হোটেলটিতে।

৫. হোটেলের গা ঘেঁষে উঠে গিয়েছে সবুজ পাহাড়। নিশিয়ামাকে জড়িয়ে রয়েছে পাহাড়ি ঝর্না। এমনই প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের মধ্যে হাজার বছরের স্মৃতি নিয়ে দাঁড়িয়ে রয়েছে এই হোটেল।

৬. অথেন্টিক জাপানিজ খাবারের জন্য বিখ্যাত এই হোটেল।

৭. গোটা হোটেলে রয়েছে ৩৭টি বড় বড় ঘর।

৮. এই হোটেলে একটি রাত থাকতে গেলে আপনাকে গুণতে হবে ৫২ হাজার ইয়েন।

৯. ঢোকার মুখেই রয়েছে হট স্প্রিং ফাউন্টেইন।

১০. তৎকালীন জাপানি সম্রাটের পুত্র ফুজিওয়ারা মাহিতো তৈরি করেছিলেন নিশিয়ামা অনসেন কেইয়ুনকান।

১১. ১৯৯৭ সালে পুরোনো ডিজাইন প্রায় একইরকম রেখে নতুন ভাবে সাজানো হয়েছিল নিশিয়ামা।

১২. প্রকৃতির কোলে এমনই স্নানের ব্যবস্থা রয়েছে নিশিয়ামায়।

সূত্র : আনন্দবাজার