মেইন ম্যেনু

১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে এমপির বিরুদ্ধে বিক্ষোভ

ঠাকুরগাঁও জেলার হরিপুরে আওয়ামী লীগ কার্যালয় ও তার আশপাশের এলাকায় জারি করা ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে স্থানীয় এমপি দবিরুল ইসলামে বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করেছে উপজেলা আওয়ামী লীগ।

শনিবার বেলা সাড়ে ১১টায় উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা মিছিল বের করে কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ করে। এ সময় এমপি দবিরুল ইসলামের ব্যানার ফেস্টুন ভাঙচুর করে। সকাল থেকেই দলীয় কার্যালয়ে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন করে প্রশাসন।

পরে পুলিশ বিক্ষোভকারীদের আওয়ামী লীগ অফিসের সামনে থেকে সরিয়ে দিলে এমপির বিরুদ্ধে নানা রকম স্লোগান দিয়ে শহরে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে বিক্ষোভ করে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। এ সময় উপজেলা যুবলীগ সাধারণ সম্পাদকের দোকান ভাঙচুর করে বিক্ষোভকারীরা।

উল্লেখ্য, উপজেলা আ’লীগ কার্যালয়ে কৃষক লীগ ও যুবলীগ সভা আহ্বান করায় ভারপ্রাপ্ত ইউএনও আব্দুল মান্নান শনিবার সকাল ৬টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত ১৪৪ ধারা জারি করেন। হরিপুর উপজেলার ভারপ্রাপ্ত ইউএনও আব্দুল মান্নান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে শনিবার সকাল ১০টায় একই সময়ে জেলা কৃষক লীগ পরিচিতি সভা ও উপজেলা যুবলীগ বর্ধিত সভা আহ্বান করে। এ অবস্থায় সংঘর্ষ এড়াতে উপজেলা প্রশাসন ১৪৪ ধারা জারি করে।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ জিয়াউল হাসান মুকুল জানান, শনিবার কৃষকলীগ উপজেলা কার্যালয়ে পরিচিতি সভার আয়োজন করে। পরিচিতি সভা ভঙ্গ করার জন্য পূর্ব শক্রতার জের ধরে একই স্থানে যুবলীগ বর্ধিত সভা ডাক দেয়। পরিচিতি সভা ভঙ্গ করার জন্য স্থানীয় এমপি প্রশাসনের মাধ্যমে আওয়ামী লীগ কার্যালয় ও তার আশপাশের এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করেন।

যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আমজাদ হোসেনের জানান, আমরা আগে কার্যালয়ে বর্ধিত সভার আযোজন করেছি। কিন্তু উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী এই বর্ধিত সভা করতে দিতে চায় না।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদ জিয়াউল হাসান মুকুলসহ ২১ জনের বিরুদ্ধে সম্প্রতি একটি চুরির মামলা দায়ের করে ছাত্রলীগ নেতা মনা উদ্দিন মনি। এই মামলা দায়ের পেছনে স্থানীয় এমপি দবিরুল ইসলামের হাত আছে বলে উপজেলা আওয়ামী লীগের অভিযোগও রয়েছে। অপর দিকে যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আমজাদ হোসেন ও উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মজিবর রহমানসহ ২০ জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের হয়েছে।

হরিপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত ) সাইয়েদুর রহামান জানান, সকাল থেকে আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে। নেতাকর্মীরা বাইরে বিক্ষোভ করলেও দলীয় কার্যালয়ে আসতে পারিনি।