মেইন ম্যেনু

১৫ প্রেমিকার টাকা মেরে চম্পট, অতঃপর আটক

ভালবাসার অভিনয় করে ভার্জিনিয়া, আটলান্টা এবং নিউইয়র্ক সিটির ম্যানহাটানের কর্মজীবী ১৫ সুন্দরীর ক্রেডিট কার্ড থেকে ৩ লাখ ৬০ হাজার ডলার হাতিয়ে নেয়া জন টেইলর (৪৬)কে গ্রেফতার করা হয়েছে।

মামলার বিবরণে প্রকাশ, অনলাইন তথা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে টেইলরের বন্ধুত্ব হয় ওই ১৫ নারীর সঙ্গে। এরা সকলেই উঠতি বয়সী ও উচ্চ বেতনের কর্মকর্তা। জন টেইলর নিজেকে তেল কোম্পানির মালিক হিসেবে পরিচয় দিয়ে ওই ১৫ জনের সাথে আলাদাভাবে প্রেমিকের ভান করেন। সম্পর্ক ক্রমে মধুর হবার পর তাদের প্রত্যেককে বিছানায় নেন। এক পর্যায়ে সকলের ক্রেডিট কার্ড ইনফরমেশনও সংগ্রহ করেন। তুলে নেন আপত্তিকর ছবি ও ভিডিও। এক প্রেমিকা নিজের ক্রেডিট কার্ডের বিল দেখে হতভম্ব হন এবং ফোন করেন টেইলরকে। সে সময় টেইলর তাকে পাল্টা হুমকি দেন যে, বেশি বাড়াবাড়ি করলে তার সাথে উঠানো নগ্ন ছবি অফিসের সকলের কাছে পাঠিয়ে দেয়া হবে। এরপর অন্য নারী বন্ধুদের সাথে এই ক্ষুব্ধ নারীর যোগাযোগ ঘটে। তারা সকলেই টেইলরের ভিকটিম হিসেবে পুলিশকে জানায়।

দীর্ঘ তদন্ত শেষে গত ২৭ ডিসেম্বর টেইলরকে গ্রেফতার করে পরদিন ম্যানহাটানে ফেডারেল কোর্টে সোপর্দ করা হয়। তার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত অভিযোগ প্রমাণিত হলে সর্বোচ্চ ৩০ বছরের জেল হতে পারে বলে জানিয়েছেন আইনজীবীরা। ৪ জানুয়ারি তাকে পুনরায় কোর্টে হাজির করার নির্দেশ দিয়েছেন মাননীয় জজ। তাকে জামিনহীন আটকাদেশও দেয়া হয়েছে।