মেইন ম্যেনু

২০১৮ সালের মধ্যে পদ্মা সেতু

পদ্মা সেতু নির্মাণ ২০১৮ সালের মধ্যে সম্পন্ন হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্পও সরকারের চলতি মেয়াদে শেষ হবে বলে জানান তিনি।

জাতীয় সংসদে আজ ২০১৫-১৬ অর্থবছরের বাজেট বক্তব্যে মন্ত্রী ফার্স্ট ট্র্যাক প্রকল্প সম্পর্কে বলতে গিয়ে এ আশার কথা বলেন।

মন্ত্রী তার বাজেট বক্তব্যে বলেন, ‘আমরা ইতোমধ্যে প্রবৃদ্ধিতে গতি সঞ্চালক ৮টি বৃহৎ প্রকল্পকে (ফার্স্ট ট্র্যাক প্রকল্প) দ্রুততম সময়ে বাস্তবায়নের জন্য প্রধানমন্ত্রীর নজরদারিতে এনেছি। প্রকল্পগুলো হলো পদ্মা সেতু প্রকল্প, রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প, রামপাল কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ প্রকল্প, গভীর সমুদ্র বন্দর নির্মাণ প্রকল্প, এমআরটি-৬ প্রকল্প, এলএনজি টার্মিনাল নির্মাণ প্রকল্প, মাতারবাড়ি বিদ্যুৎ প্রকল্প ও পায়রা সমুদ্র বন্দর প্রকল্প।’

তিনি বলেন, ‘এসব প্রকল্পের মধ্যে পদ্মা সেতু ও রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্প দুটি আমাদের চলতি মেয়াদে শেষ হবে বলে আশা করছি।’

পদ্মা সেতুর বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘বিশ্বব্যাংকের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শুধু পদ্মা সেতু বাস্তবায়নের মাধ্যমে জিডিপি প্রবৃদ্ধি প্রতিবছর শুন্য দশমিক ৫৬ শতাংশ বাড়বে এবং অনগ্রসর দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে উন্নয়ন কর্মকাণ্ড ত্বরান্বিত হবে। আমরা আশা করছি ২০১৮ সালের মধ্যে পদ্মা সেতু নির্মাণ সম্পন্ন হবে, ইনশাল্লাহ।’