মেইন ম্যেনু

জোটের বৈঠক

বিক্ষোভের চিন্তা ২০ দলের!

এখনই কোনো কঠোর কর্মসূচির দিকে যেতে রাজি নয় বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট। নতুন করে গ্যাস ও বিদ্যুতের দাম বাড়ানো হলেও এর প্রতিবাদে বিক্ষোভ কর্মসূচির কথা ভাবছে বিএনপি জোট।

রবিবার রাতে বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশান কার্যালয়ে জোটের বৈঠকে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে বৈঠক সূত্রে জানা গেছে।

বৈঠক শেষে জোটের অন্যতম শীর্ষ নেতা বাংলাদেশ ন্যাপের চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি বলেন, ‘বৈঠকে গ্যাস বিদ্যুতের নতুন করে দাম বাড়ানোর বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। জোট নেতারা বৈঠকে এর প্রতিবাদে কী ধরণের কর্মসূচি দেওয়া যায় তা নিয়ে যার যার অভিমত তুলে ধরেছেন।’

তিনি বলেন, “জোটনেত্রী সকলের অভিমত শুনেছেন। তবে তিনি কোনো সিদ্ধান্ত জানাননি।”

কী ধরনের কর্মসূচির বিষয়ে আলোচনা হয়েছে জানাতে চাইলে তিনি বলেন, ‘হরতাল, বিক্ষোভ থেকে শুরু করে লিফলেট বিতরণ পর্যন্ত আলোচনা হয়েছে। তবে কী কর্মসূচি দেওয়া হবে তা শুধু ম্যাডামই বলতে পারবেন।’

এদিকে বিক্ষোভের কর্মসূচি দিলেও তা মহানগর বা জেলা পর্যায়ের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকতে পারে বলেও জোট সূত্রে জানা গেছে।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন এমন দুটি দলের দুই নেতাও বিক্ষোভের ইঙ্গিত দিয়েছেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক শরিক দলের একজন চেয়ারম্যান বলেন, “১ সেপ্টেম্বর বিএনপির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী, ৩ সেপ্টেম্বর তারেক রহমানের কারামু্ক্তি দিবসের কর্মসূচি রয়েছে। সেজন্য ৪ সেপ্টেম্বর গ্যাস বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর প্রতিবাদে কর্মসূচি আসতে পারে।”

এর আগে খালেদা জিয়ার সভাপতিত্বে রাত পৌনে আটটার দিকে বৈঠক শুরু হয়। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এলডিপি) চেয়ারম্যান কর্নেল (অব.) অলি আহমদ, বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইব্রাহিম, জামায়াতে ইসলামীর কর্মপরিষদ সদস্য আব্দুল হালিম, জাতীয় পার্টির (কাজী জাফর) ফজলে রাব্বী চৌধুরী, ইসলামী ঐক্য জোটের চেয়ারম্যান মাওলানা আব্দুল লতিফ নেজামী, জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টির (জাগপা) প্রধান শফিউল আলম প্রধান, ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টির (ভাসানী) চেয়ারম্যান আজহারুল ইসলাম চৌধুরী, বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি (বিজেপি) চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার আন্দালিব রহমান পার্থ, ন্যাশনাল পিপলস পার্টির (এনপিপি) চেয়ারম্যান ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টির (ন্যাপ) চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গাণী, বাংলাদেশ মুসলিম লীগের সভাপতি এইচ এম কামরুজ্জামান খান, বাংলাদেশ লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এনডিপি) চেয়ারম্যান খন্দকার গোলাম মোর্ত্তুজা, খেলাফত মজলিশের মাওলানা ইসহাক, ইসলামিক পার্টির চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার সায়েদুল হাসান, পিপলস লীগের সভাপতি গরীবে নেওয়াজ, সাম্যবাদী দলের চেয়ারম্যান সাঈদ আহমেদ।