মেইন ম্যেনু

২২১২ কোটি টাকা ব্যয়ে তৈরি ডাবল রেললাইন উদ্বোধন

দুই হাজার দুইশ ১২ কোটি টাকা খরচে নির্মিত টঙ্গী-ভৈরব ডাবল লাইনে ট্রেন চলাচল শুরু হয়েছে। আগামী মাসের শুরুর দিকে নতুন ২৭৪টি কোচ রেলওয়েতে যোগ করার কথা জানিয়েছেন রেলমন্ত্রী।

দেশের দুই হাজার আটশ ৭৭ কিলোমিটার রেললাইনের মধ্যে অগ্রাধিকার ভিত্তিতি ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটকে ডাবল লাইনে রূপান্তরের কাজ শুরু হয় ২০১১ সালে। প্রায় চার বছর পর গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে টঙ্গি থেকে ভৈরব বাজার জংশন পর্যন্ত ডাবল লাইনের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সেসময় ২০১৮ সালের মধ্যে রেলওয়ের সেবার মান আন্তর্জাতিক পর্যায়ে নিয়ে যাওয়ার কথা বলেন রেলমন্ত্রী মোঃ মুজিবুল হক। তিনি বলেন, আমাদের এখন ৩৯টি প্রকল্প এখন চলমান। আরো ১০টি প্রকল্প আমরা অতিদ্রুত গ্রহণ করবো। রবিশাল ও পায়রা বন্দরে রেললাইন চালু হবে।

পরে ভৈরব বাজার থেকে টঙ্গিগামী এক জোড়া ডেমো ট্রেন চালানোর মধ্য দিয়ে শুরু হয় দ্বিতীয় লাইনে ট্রেন চলাচল।

রাজধানী ঢাকার সঙ্গে কিশোরগঞ্জ হয়ে চট্টগ্রামগামী ডাবল লাইন চালু হওয়ায় দারুন খুশি ওই রুটে চলাচলকারী যাত্রীরা।

ডাবল লাইন চালু হওয়ায় রেলওয়ের পূর্বাঞ্চলে চলাচলকারী ৪৬টি ট্রেনের যাতায়াতের সময় যেমন কমবে তেমনি প্রায় দ্বিগুণ ট্রেনও পরিচালনা করতে পারবে রেলওয়ে।