মেইন ম্যেনু

২২ বছরের কনে বিয়ের এক মাসের মাথায় কোটিপতি!

কাজের সূত্র ধরে পাড়ি দিয়েছিলেন সৌদি আরবে। আর সেখানে যাওয়ার পরই এক ব্যবসায়ীর নজরে পড়ে যান তিনি। তাকে দেখে বিয়ের প্রস্তাব দেন সেই ব্যবসায়ী, এতে রাজি হয়ে যান ২২ বছরের সেই আরব নারী। তাদের বিয়ে হয়ে যায়। কিন্তু বিয়ের এক মাসের মাথায় মারা যান তার স্বামী সেই সৌদি ব্যবসায়ী। আর সেই ব্যবসায়ীর সব সম্পদের মালিক হয়ে যান তিনি।

তবে কোটিপতি বনে যাওয়া সেই নারীর নাম বা তার দেশ সম্পর্কে কোনো কিছু জানা যায়নি। আরব দেশগুলোর কোনো একটি দেশেই তার জন্ম এটুকুই জানা গিয়েছে। কাজের জন্য তিনি নিজের দেশ থেকে পাড়ি দিয়েছিলেন সৌদি আরবে। আর সৌদি ব্যবসায়ীকে বিয়ে করে রাতারাতি বনে গেলেন কোটিপতি। গালফ নিউজের এক প্রতিবেদনে এ খবর জানা যায়। তবে সেখানে মৃত সৌদি ব্যবসায়ীর নাম বা বয়স কিছুই প্রকাশ করা হয়নি।

এটুকু জানা গিয়েছে মৃত্য ব্যক্তি আগে একটি বিয়ে করেছিলেন সেই পরিবারে তার সন্তানও রয়েছে। কিন্তু তার এ বিয়ের কথা স্ত্রী সন্তানদের কেউই জানতো না। তবে বিয়ের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন তার এক ভাই এবং এক ঘনিষ্ঠ বন্ধু। কিন্তু বিয়ের এক মাস পর নতুন স্ত্রীর বাসাতেই হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান সেই সৌদি ব্যবসায়ী।

মৃত ব্যক্তির আগের স্ত্রী এবং সন্তানেরা তার দ্বিতীয় বিয়ের বিষয়টি অস্বীকার করে নববধূকে সম্পত্তির অধিকার থেকে বঞ্চিত করার চেষ্টা করে। আর তখনি এই ২২ বছরের তরুণী আইনের আশ্রয় নেন। ব্যবসায়ীর ভাই ও বন্ধুর সাক্ষীর উপর ভিত্তি করে আদালত তাকে তার ন্যায্য অধিকার দেয়ার নির্দেশ দেয়।

এতে করে ওই নারী বিয়ের এক মাসের মাথায় ৬৭ মিলিয়ন সৌদি রিয়াল (যা বাংলাদেশের টাকায় প্রায় ১৪ কোটি) এবং একটি বাড়ির মালিকানা পেয়ে যান।