মেইন ম্যেনু

৩০ বছর জেল, অতঃপর মাকে হত্যা!

১৯৮৪ সালে স্টিভেন প্রাট তার নিজের বাসায় নিউ জার্সিতে একজন পুরুষকে গুলি করে হত্যা করেন। সে একজন অপ্রাপ্তবয়স্ক ছিলেন। তখন থেকে ৩০ বছর যাবত সে জেলে ছিলেন।

৩০ বছর পর স্টিভেন আবার নতুন করে তার জীবন শুরু করতে চেয়েছিলেন। তাই সে তার পরিবারের নিকট যায়, যেখানে তারা উৎসবের মাধ্যমে তাকে বরণ করে নেন। সবকিছু ভাল যাচ্ছিল স্টিভেনের, কিন্তু ইতিহাস যেন আবার পুরানো স্মৃতিতে ফিরে যাচ্ছিল।

৬৪ বছর বয়সী অয়েন্ডলিন প্রাট মাথায় আঘাত পেয়ে মৃত্যুবরণ করলে স্টিভেনকে আবার গ্রেফতার করা হয়। স্টিভেনের মুক্তির দুইদিন পর তার মা অয়েন্ডলিনের মৃত্যু হয়।

তিনি আদালতে বিচারকদের জানান, ‘আমি হেরে গিয়েছি। আমি কোন ট্রায়াল চাই না, আমি অপরাধী।’

স্টিভেনের স্বীকারোক্তির কারণে এই সপ্তাহের মাঝে তার মামলার রায়ের ঘোষণা হতে পারে। এবার তার ২৫ বছরের জেল হতে পারে। রোনাল্ড গ্রুয়েন নামের একজন মনোবৈজ্ঞানিক বলেন, কাউকে যদি দশকের পর দশক ধরে জেলে রাখা হয়, তাহলে অবশ্যই সে কোন নিষ্পাপ মানুষ নন। তারা অবশ্যই অনেক বেশি রাগী ও ভীতু মানুষ। তারা পৃথিবী নিয়ে বিচলিত।–সুত্র: মেট্রো।