মেইন ম্যেনু

৩০ বছর পর ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি

৩০ বছর পর বিনি পরিবারের জন্য ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি ঘটলো। ভারতের বিশ্বকাপজয়ী তারকা রজার বিনি ১৯৮৫ সালে শ্রীলংকার বিপক্ষে প্রথম টেস্টের পর অতিরিক্ত খেলোয়াড় হিসেবে জাতীয় দলে জায়গা পান। সাবেক এই অলরাউন্ডার লংকানদের বিপক্ষে ক্যান্ডি টেস্টে খেলেছিলেন।

৩০ বছর পর রজার বিনির ছেলে স্টুয়ার্ট বিনি শ্রীলংকা সফরের জন্য অতিরিক্ত খেলোয়াড় হিসেবে দলে জায়গা পেলেন। বিশ্বাস করুন আর না-ই করুন, ঠিক তার বাবার মতো প্রথম টেস্টের পর ভারতীয় দলে জায়গা পেলেন স্টুয়ার্ট।

মিল তো আরো রয়েছে। ১৯৮৫ সালে ভারতীয় দলের অধিনায়কের নামের প্রথম অক্ষর ছিল ‘ক’। সেবার ভারতকে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন ৮৩’র বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক কপিল দেব। ৩০ বছর পর ভারতীয় দলের অধিনায়কের নামের প্রথম অক্ষরও ‘ক’- কোহলি।

অবশ্য দলে কেউ নতুন করে ইনজুরিতে পড়েননি। মিডল অর্ডারে ব্যাটিং গভীরতা বাড়ানোর পাশাপাশি কার্যকরী বোলিংয়ের জন্যই অলরাউন্ডার বিনিকে দলে অন্তর্ভুক্ত করেছে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড (বিসিসিআই)। বিনির অন্তর্ভুক্তিতে ভারতীয় স্কোয়াড ১৫ থেকে এখন ১৬ জনে পরিণত হয়েছে।

তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্টে লংকান স্পিনার রঙ্গনা হেরাথের বোলিং তোপে পড়ে জয়ের জন্য ১৭৬ রানের লক্ষ্য নিয়ে খেলতে নেমে মাত্র ১১২ রানে গুটিয়ে যায় ভারত। ফলে ৬৩ রানের পরাজয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে কোহলির দল। প্রথম ইনিংসে উইকেটশূন্য থাকা হেরাথ দ্বিতীয় ইনিংসে ৩৭ রানের বিনিময়ে নেন ৭ উইকেট।

আগামী আগস্ট থেকে শুরু হতে যাওয়া কলম্বো টেস্টে স্টুয়ার্ট বিনির খেলার সম্ভাবনা রয়েছে। যদি তিনি খেলেন তবে ছয় নম্বর পজিশনে ব্যাটিং করবেন এবং দলের পাঁচ নম্বর বোলিংয়ের দায়িত্ব পালন করবেন।

অলরাউন্ডার স্টুয়ার্ট বিনি জাতীয় দলের হয়ে এই পর্যন্ত ৩টি টেস্ট খেলেছেন। গত বছরের মাঝামাঝিতে ইংল্যান্ড সফরে তিন ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রতিটিতেই খেলেছেন বিনি। তিন টেস্টে একটি ফিফটির সাহায্যে ২৩.৬০ গড়ে ১১৮ রান করেন তিনি, যার মধ্যে অভিষেক ম্যাচে ৭৮ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস খেলে নটিংহ্যাম টেস্টে দলকে ড্র পাইয়ে দিতে সাহায্য করেন। তবে বোলিংয়ে উইকেটের দেখা পাননি এই অলরাউন্ডার।



« (পূর্বের সংবাদ)