মেইন ম্যেনু

৩৬ বছর প্রেম করে অবশেষে পরিণতি কী হলো জানুন…

তাদের ভালোবাসা যেন রূপকথাকেও হার মানিয়ে যায়। তাদের কাছে আসাটা খুব সহজ ছিলনা।দুজনকে দুজনার করে নিতে দীর্ঘ ৩৬ বছর তারা অপেক্ষা করেছে। অবশেষে শেষ হল তাদের এ অপেক্ষা।

সকল বাঁধা পেরিয়ে ৩৬ বছরের প্রেমের পর অবশেষে সাত পাকে বাঁধা পড়লেন শুধাংশু বৈরাগী ও নিভা রানী রায়।
বাগেরহাটের চিতলমারী উপজেলার খড়মখালী গ্রামের এ যুগল স্কুল জীবন থেকেই প্রেমের সম্পর্কে বাঁধা পড়েন যা কলেজ জীবনে এসে পূর্ণতা পায়।বর্ণীল শিক্ষা জীবন শেষে একত্রে ঘর বাঁধার স্বপ্ন দেখলেও দুই পরিবারের মধ্যে মতবিরোধ থাকার ফলে তাদের ঘর বাঁধার স্বপ্ন ভেস্তে যায়।কিন্তু তবুও এক হবার আশায় বুক বেঁধে থাকে দু’জনে। আর এভাবেই কেটে যায় ৩৬ টি বছর।

শুধাংশু বৈরাগী বর্তমানে প্রায় ৫৫ বছরে পা দিয়েছেন। তিনি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়েছেন। এলাকায় সামাজিক-সাংস্কৃতিক অঙ্গনেও তার রয়েছে ব্যাপক পরিচিতি । প্রেমিকা নিভা রাণীর বয়স এখন ৫০এর কোঠায়। তিনি বর্তমানে একটি বেসরকারি এনজিও সংস্থার উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন।

এলাকাবাসীর থেকে জানা যায় ,রেল মন্ত্রীর বিয়ের পরে দিয়েই এই প্রেমিক জুটির দীর্ঘ দিনের সম্পর্কের বিষয়টি এলাকার সচেতন মহলের নজরে আসে। বিষয়টি নিয়ে অনেকেই এগিয়ে আসেন। গত কয়েক মাস চেষ্টার পর অবশেষে দুই পরিবারের সম্মতিতে হিন্দু রীতি অনুযায়ী অগ্নি স্বাক্ষী রেখে মালা বদলের মাধ্যমে প্রেমিকা নিভার বাড়িতে বসে ধুম-ধামের সঙ্গে এ বিয়ে সম্পন্ন হয়।

অসাধারণ সংযমী এ যুগলের বিয়ে দেখতে বিয়ে বাড়িতে উপচে পড়ে এলাকার মানুষ। ইতমধ্যে অনেকে এই প্রেমিক যুগলকে আখ্যা দিয়েছেন এ যুগের রজকিনী-চন্ডিদাস বলে।