মেইন ম্যেনু

৩ শিশুকে পুড়িয়ে হত্যা করল পাষণ্ড চাচা

পারিবারিক কলহের জের ধরে ঝিনাইদহের শৈলকুপা শহরের কবিরপুরে দুই ভাজিতা ও এক ভাগিনাকে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনা ঘটেছে। রোববার সন্ধ্যা ৭টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলো ওই গ্রামের দেলোয়ার হোসেনের ছেলে ছেলে শাফিন (১১) ও আমিন (৮) এবং বড় বোনের ছেলে মাহিন (১৪)। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে ইকবাল হোসেনকে আটক করেছে পুলিশ।

কবিরপুর গ্রামের সার ব্যবসায়ী গোলাম নবীর দুই ছেলে সিঙ্গাপুর প্রবাসী সম্প্রতি দেশে ফেরা ইকবাল ও শৈলকুপা পাইলট স্কুলের শিক্ষক দেলোয়ারের মধ্যে অর্থ-সম্পদ নিয়ে পারিবারিক দ্বন্দ্ব চলে আসছিল।

এরই জের ধরে রোববার সন্ধ্যা ৭টায় প্রবাসী ইকবালের ছোট ভাই দেলোয়ারের দুই ছেলে শাফিন, আমিন ও বড় বোনের এক ছেলে মাহিনকে জানালার গ্রিলের সঙ্গে হাত ও মুখ বেঁধে বেধড়ক মারপিট করে। পরে তাদের গায়ে পেট্রল ঢেলে আগুন লাগিয়ে দিয়ে বাইরে থেকে তালা বন্ধ করে দেয়। এ সময় ঘরে থাকা গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরিত হয়ে আগুন লেগে যায়।

খবর পেয়ে শৈলকুপা ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এ সময় অগ্নিদগ্ধ তিন শিশুকে শৈলকুপা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক দেলোয়ারের দুই ছেলেকে মৃত ঘোষণা করে ও বড় বোন জেসমিনের ছেলে মাহিনকে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে পাঠালে সেখানে তার মৃত্যু হয়।

শৈলকুপা থানার এসআই এমদাদ হোসেন জানান, অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় তিন শিশু নিহত হয়েছে। ঘাতক ইকবাল হোসেনকে আটক করা হয়েছে।

খবর পেয়ে ঝিনাইদহ সহকারী পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) গোনীনাথ কান্জিলাল, শৈলকুপা উপজেলা চেয়ারম্যান শিকদার মোশাররফ হোসেন সোনা, পৌর মেয়র কাজী আশরাফুল আজম ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ দিদারুল আলম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।