মেইন ম্যেনু

৪৬ বছরের ইতিহাস পাল্টালেন এই দুই ব্যাটসম্যাস

দীর্ঘ ৪৬ বছরের ইতিহাস পাল্টালেন দক্ষিণ আফ্রিকার এই দুই ব্যাটসম্যান। পোর্ট এলিজাবেথে গত ৪৬ বছরে ১০০ রানের উদ্বোধনী জুটি পায়নি দক্ষিণ আফ্রিকা। সবশেষ ১৯৭০ সালে এডি বারলো ও ব্যারি রিচার্ডস ১৫৭ রানের জুটি গড়েছিলেন সেন্ট জর্জেস পার্কে।

৪৬ বছর পর সেই ব্যর্থতা মেটালেন স্টিফেন কুক ও ডিন এলগার। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে গতকাল প্রোটিয়া দুই উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান গড়েন ১০৪ রানের জুটি।

তাঁদের কেউই অবশ্য ইনিংসটা টেনে নিতে পারেননি, ইনিংস বড় করতে পারেননি পরের দিকের ব্যাটসম্যানরাও। অমন বর্ণিল শুরুর পরও দিনটি পুরোপুরি প্রোটিয়াদের নয়। সুরঙ্গা লাকমল ও রঙ্গনা হেরাথের বোলিং তোপে দারুণভাবে ম্যাচে ফিরে আসে শ্রীলঙ্কা। প্রথম দিনের খেলা শেষে প্রোটিয়াদের স্কোর ৬ উইকেটে ২৬৭। ২৫ রানে কুইন্টন ডি কক এবং ৬ রানে অপরাজিত আছেন ভারনন ফিল্যান্ডার।

শতরানের জুটির পর মাত্র ১ রানের ব্যবধানে দক্ষিণ আফ্রিকার দুই উদ্বোধনী ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়েছেন পেসার সুরঙ্গা লাকমল। এরপর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারিয়ে কক্ষচ্যুত হয়ে পড়ে স্বাগতিকরা। জেপি দুমিনির সঙ্গে ৭৩ রানের জুটি গড়ার পর ছন্দ হারানো হাশিম আমলাও হন এই পেসারের শিকার।

হাফসেঞ্চুরিয়ান দুমিনিকে ফিরিয়েছেন স্পিনার রঙ্গনা হেরাথ। খানিকটা পরে তাঁর ঘূর্ণি বলে এলবিডাব্লিউর ফাঁদে পড়েন টেম্বা বাভুমা। হেরাথের জোড়া শিকারের পর আবার আঘাত লাকমলের। ৩৭ রান করে দিমুথ করুণারত্নের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরে আসেন অধিনায়ক ফাফ দু প্লেসিসও। পেসে আগুন ঝরিয়ে ৬২ রানে ৪ উইকেট নিয়েছেন লাকমল। ৪৮ রানে ২ উইকেট হেরাথের। ক্রিকইনফো

সংক্ষিপ্ত স্কোর
দক্ষিণ আফ্রিকা প্রথম ইনিংস : ৯০ ওভারে ২৬৭/৬ (দুমিনি ৬৩, কুক ৫৯, এলগার ৪৫, দু প্লেসিস ৩৭; লাকমল ৪/৫৯, হেরাথ ২/৪৮)।