মেইন ম্যেনু

৫টি কৌশলে বাড়বে কথা বলার ক্ষমতা

ইন্ট্রোভার্ট মানুষের একটি সাধারণ সমস্যা কম কম বলা। আপনি হয়তো ভাবছেন, কেউ কথা কম বলেন এর মাঝে দোষের কি আছে? বেশী কথা বলাই তো বরং বিরক্তিকর! বাচালতা কেইবা পছন্দ করেন? আপনার ভাবনা সঠিক। বিষয়টি আসলে বেশী কথা বলার নয়। যতটুকু প্রয়োজন ততটুকু কথা বলা তো জরুরি তাই না?

অনেকেই আছেন যারা বন্ধুদের আড্ডায় কথা খুঁজে পান না। জরুরি কথাটি ঠোঁটের আগায় চলে আসে তবু মুখ ফুটে বলাই হয় না। আত্মবিশ্বাসের অভাব, সংকোচবোধ আমাদের সাবলিল কথা বলার শক্তিকে বাধাগ্রস্থ করে। আসুন জেনে সাবলীলতা ফিরে পাবার কৌশলগুলো।

আয়না তুমি বন্ধু আমার
আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে কথা বলার অনুশীলন করুন। আমরা যারা কথা কম বলি, কথা বলার সময় কী করে যেন মুখে একটা বিব্রতবোধ ফুটে ওঠে! আমরা হয়ত খেয়ালও করছি না, কিন্তু বদলে যায় আমাদের বডি ল্যাংগুয়েজ। এই সমস্যার সমাধান দিতে পারে আয়নাবন্ধু। প্রথমে নিজের মুখোমুখি হন। নিজের কথাগুলো সংকোচহীন হয়ে নিজেকেই বলুন। একসময় অন্যদের সাথে কথা বলার ক্ষেত্রেও জড়তা কেটে যাবে আপনার।

পাশে আছে বন্ধুরাও
বন্ধুদের কাছে সহযোগিতা চাইতে পারেন। এতে সংকোচ বোধ করার কিছু নেই। আপনার অনেক বন্ধুই নিশ্চয়ই আছেন যারা আপনার মতই মন খুলে কথা বলতে চেয়েও পারেন না। আপনারা একটি গ্রুপ তৈরি করুন এবং নিজেরা প্রতিজ্ঞা করুন প্রতিদিন কথা বলার অনুশীলন করবেন। যেখানেই কথা বলতে যেয়ে সংকোচবোধ করবেন সেখানেই নিজের সাথে লড়াই করে চালিয়ে যাবেন কথা বলা। রোজ অন্তত ১০ বার আপনি সফলভাবে কাজটি করবেন এবং দিনশেষে বন্ধুরা নিজেদের অভিজ্ঞতা শেয়ার করুন। দিনে দিনে বেড়ে যাবে আত্মবিশ্বাস।

পড়ার কোন বিকল্প নেই
আপনার হয়ত মনে হতে থাকে আপনি যে কথাটি বলতে চাইছেন সেটা শুনে সবাই হেসেই উড়িয়ে দেবেন। অথবা আপনার কথার মূল্য কেউ দেবেন না। এই হীনমন্যতাবোধ কাটিয়ে উঠতে বইয়ের কোন বিকল্প নেই। আপনি যত পড়বেন তত জানবেন এবং আপনার জানাগুলোই আপনাকে নিজের উপর ভরসা করতে শেখাবে। আপনি যখন কোন কথাই না জেনে বা না বুঝে বলেন না তখন আপনাকে নিয়ে হাসাহাসির কোন প্রশ্নই নেই। জ্ঞান মানুষের ব্যক্তিত্বই বদলে দেয়। জ্ঞানী মানুষের কথা সবাই উন্মুখ হয়ে শোনেন।

সংবাদ জানুন
নেতিবাচক সব সংবাদ জানা জরুরি নয়। এতে আপনার স্ট্রেস বাড়তে পারে। তবে সংবাদ শুধু নেতিবাচক ঘটনারই হয় না। নতুন কিছু আবিষ্কার, নতুন কোন সৃষ্টির খবর পড়ুন। দেশ, রাজনীতি, অর্থনীতি সংক্রান্ত তথ্যগুলো জেনে রাখুন। একইসাথে রাখুন প্রযুক্তির খবরাখবর। আপনার যখন কথা বলার বিষয়েরই অভাব থাকবে না তখন কথা বলতে বা আড্ডায় যোগ দিতে কোন সংকোচও হবে না। নিজেকে রাখুন আপ টু ডেট। সবসময়।

আকর্ষণীয় ব্যক্তিত্ব প্রকাশের অন্যতম শর্ত ভাল বক্তা হওয়া। আসর জমানো মানুষেরাই জনপ্রিয় হন। তাই সংকোচ ঝেড়ে ফেলে নিজেকে নিয়ে আসুন সামনের সারিতে। হয়ে উঠুন সাবলিল বক্তা।