মেইন ম্যেনু

৫শ কেজি ওজন নিয়ে শুধু বিছানায়ই বসবাস করছেন এই নারী

হাঁটাচলা করা, কোথাও ঘুরতে যাওয়া বা নিজের কাজ করা সবই যেন অসম্ভব হয়ে পড়ছে। মিসরের আলেকজান্দ্রিয়ার বাসিন্দা ইমাম আহমেদ আবদুলাতির (৩৬) ওজন শুনে অবাক না হয়ে পারবেন না। এই বয়সেই তার ওজন ৫শ কেজিতে পৌঁছেছে যা রীতিমত উদ্বেগজনক। যা মাথা নষ্টকরা এক কাহিনী।

ওজনের কারণে বহু বছর ধরে বাড়ি থেকে বের হননি তিনি। বাইরের পৃথিবীর সঙ্গে তার কোনো যোগাযোগ নেই। দিন দিন তার ওজন এতটাই বাড়ছে যে তার চিকিৎসার জন্যও তেমন কোনো সমাধান দিতে পারছে না স্থানী কোনো হাসপাতাল। আর তার ওজন এখন এমন একটা পর্যায়ে পোঁছেছে যে তাকে বাড়ি থেকে বের করে হাসপাতালে নেয়াও সম্ভব হচ্ছে না।

আবদুলাতির বোন ছায়মা আল আরাবিয়াকে জানিয়েছেন, ওজন নিয়ে তার বোন খুব যন্ত্রণা ভোগ করছেন। তাদের পরিবারের সদস্য বলতে তারা দু’বোন এবং তাদের মা। বেশ কয়েক বছর হলো তাদের বাবা মারা গেছেন।

ছায়মা জানান, তিনি এবং তার মা পালাক্রমে তার বোনের দেখাশুনা করেন, তার সঙ্গে সময় কাটান। বিছানা থেকে উঠে অন্য কক্ষেও যেতে পারেন না আবদুলাতি। তিনি স্বাভাবিকভাবে নড়াচড়াও করতে পারেন না। কারো সাহায্য ছাড়া তিনি একা চলাফেরা করতে পারেন না।

আবদুলাতির বয়স যখন ১১ তখন সে নিজের ওজনের কারণে হাঁটতে পারত না। তখন থেকে সে হামাগুড়ি দিয়ে চলা শুরু করে। অতিরিক্ত ওজনের কারণে সে বাড়ি থেকেও বের হতো না। বেশ কয়েক বছর আগে সে সেরিব্রাল স্ট্রোক করার পর তার চলাফেরা একেবারেই বন্ধ হয়ে যায়। সারাদিন বিছানায় সময় কাটে তার।

ছায়মা জানান, জন্মের সময়ই তার বোনের ওজন ছিল পাঁচ কেজি। চিকিৎসকরা তার অবস্থার উন্নতির জন্য ওষুধও দিয়েছিল। কিন্তু তার বয়স যখন ১১ তখন সবচেয়ে খারাপ অবস্থা হয়েছিল আবদুলাতির। তখন সে সোজা হয়ে দাঁড়াতেও পারতো না। অতিরিক্ত ওজনের কারণে তার স্কুলে যাওয়াও বন্ধ করে দিতে হয়েছে। তার পরিবার তার শারীরিক অবস্থা নিয়ে বেশ চিন্তিত।