মেইন ম্যেনু

৫০ ইউপির ভোট বাতিলের দাবি বিএনপির

কেন্দ্র দখল ও ভোট কারচুপির অভিযোগে অন্তত ৫০টি ইউপির ভোট বাতিল করার দাবি জানিয়েছে বিএনপি।

মঙ্গলবার প্রথম ধাপের ইউপির ভোটগ্রহণ শেষে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের (সিইসি) সঙ্গে সাক্ষাত শেষে সাংবাদিকদের সামনে দলটির পক্ষে এ দাবি জানান বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল নোমান।

সাংবাদিকদের সামনে নোমান বলেন, ‘৭১২ ইউপির মধ্যে অধিকাংশ ইউপিতে ভোট কারচুপি, কেন্দ্র দখল, জালভোটের মহড়া হয়েছে। ইসির নিরপেক্ষতা প্রমাণের জন্য সুনির্দিষ্ট অভিযোগে অন্তত ৫০টি ইউপির ভোট বাতিলের জন্য আমরা সিইসিকে বলেছি।’

ইসি ৫০ ইউপির ভোট বাতিল করলে বাকি ইউপিগুলোতে নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে বলে মনে করবেন কিনা? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘সব ইউনিয়নে কারচুপি হয়েছে। আমরা বলেছি, অন্তত দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে, যাতে ভবিষ্যতে জনগণ বিশ্বাস করে ইসি নিরপেক্ষভাবে কাজ করতে পারে।’

বিএনপির এ নেতা জানান, পুলিশের সহযোগিতা নিয়ে সরকার দলীয় ক্যাডার-সমর্থকরা ভোট কেন্দ্র দখল করে নিজেদের অনুকূলে ফল ছিনিয়ে আনবে। পুরো ইউপির ভোট বন্ধ না করে এ পর্যন্ত ইসি অন্তত ৩৪টি কেন্দ্রের ভোট স্থগিতের তথ্য পেয়েছে। অথচ সিইসি ভোটের আগের দিন বলেছিলেন, ‘অনিয়ম হলে দায় পুলিশের, নির্বাচন কর্মকর্তারা সজাগ থাকবে।’

নোমান আরো বলেন, ‘সাত হাজার ভোটকেন্দ্রের মধ্যে কয়েকটি কেন্দ্র বন্ধ করেছে ইসি। এটা নিছক তামাশা। সরকারের আজ্ঞাবহ নির্বাচন কমিশন তামাশার নির্বাচন আয়োজন করেছে। এখন ৫০টি ইউপি’র ভোট বাতিল করলে অন্তত জনগণের আস্থা কিছুটা বাড়তে পারে ইসির প্রতি।’

প্রহসনের নির্বাচন হলেও বিএনপি ভোটে থাকবে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘মানুষকে আমরা দেখাতে চাই– তামাশার নির্বাচন হচ্ছে। প্রতিটি নির্বাচনে এ তামাশা চলছে। এ জন্যে আমরা ভোটে অংশ নেবো, যাতে এ তামাশা জনগণ আরো স্পষ্ট করে দেখতে পারে।’