মেইন ম্যেনু

৫৫ কোটি রুপির বিয়ে

মেয়ের বিয়ে বলে কথা। সাজসজ্জার জৌলুস দেখে যে কারো চোখ কপালে উঠে যাবে। মনে হবে এ যেন ‘এলিস ইন ওয়ান্ডারল্যান্ড’র পাতালপুরিতে এসে হাজির হয়েছে।

আর হবেই বা না কেন; বিয়ের এ সাজসজ্জার সেট নির্মাণ করছেন যে ভারতের এ যাবৎকালের সববেচেয়ে ব্যয়বহুল চলচ্চিত্র বাহুবলির সেট নির্মাতা। আট একর জমির ওপর রাজস্থানের রাজকীয় প্রাসাদের আদলে এ সেট নির্মাণেই খরচ হয়েছে ২০ কোটি রুপি।

বলাই বাহুল্য এই বিয়েতে খরচের চূড়ান্ত করেছেন কেরালার ধনকুবের রবি পিল্লাই। আজ বৃহস্পতিবার পিল্লাইকন্যা ড. আরথির সঙ্গে কোচির বাসিন্দা ড. আদিত্য বিষ্ণুর বিয়ের অনুষ্ঠান। এতে মোট খরচ হচ্ছে ৫৫ কোটি রুপি। তিনদিন ধরে চলা এ অনুষ্ঠানে খানা-পিনা ছাড়াও থাকছে নাচ-গানের জাকজকমপূর্ণ আয়োজন।

বাহুবলের প্রোডাকশন ডিজাইনার সাবু সিরিল জানিয়েছেন, সিনেমাটির সেট নির্মাণ করা হয়েছিল পাঁচ একর জমির ওপর। আর বিয়ের এ সেট নির্মিত হয়েছে আট একর জমির ওপর। সেট বানাতে ২০০ জন কর্মীর সময় লেগেছে ৭৫ দিন।

রবি পিল্লাই কেরালার ধনিদের তালিকায় পয়লা নম্বরে। শুধু ভারতেই নয়, উপসাগরীয় বেশ কয়েকটি দেশে রয়েছে তার ব্যবসা। তিনি মূলত নির্মাণ, অবকাঠামো উন্নয়ন, খনি ও শিক্ষা ব্যবসার সঙ্গে জড়িত। বিভিন্ন দেশে তার মালিকানাধীন ৬০টি কোম্পানিতে কর্মচারীই রয়েছে কমপক্ষে ৮০ হাজার। তো তার পক্ষে মেয়ের বিয়েতে ৫৫ কোটি রুপি খরচ মামুলি ব্যাপার।

আগেই বলেছি, অনুষ্ঠানের সেট নির্মাণ করেছেন বাহুবলির সেট নির্মাতা। সুতরাং নাচা-গানায় যে ভরপুর থাকবে তা বলাই বাহুল্য। বিয়েতে নাচ পরিবেশন করবেন মালায়লাম ভাষার অভিনেত্রী মঞ্জু ওয়ারিয়র ও সোভানা। ৩৫ লাখ বর্গফুটের প্যান্ডেলটিতে অনুষ্ঠান উপভোগ করবেন ৩০ হাজার অতিথি।

বিয়েত নিমন্ত্রিত অতিথির তালিকাও হেলাফেলা করার মতো না। মধ্যপ্রাচ্যসহ ইউরোপের বিভিন্ন দেশের রাজনীতিক, ব্যবসায়ী, চলচ্চিত্র তারকা, কূটনীতিকসহ বিভিন্ন কোম্পানির প্রধান নির্বাহীরা অনুষ্ঠানে অংশ নিচ্ছেন।

ভারতের ব্যবসায়ী-রাজনীতিক-খেলোয়ার-চলচ্চিত্র তারকারও তো থাকছেনই। এছাড়া তালিকায় রয়েছেন সংযুক্ত আরব আমিরাতে নিযুক্ত ভারতের রাষ্ট্রদূত টিপি সিথারাম, বাহরাইনের ক্রাউন প্রিন্সের অফিসের প্রেসিডেন্ট শেখ খলিফা বিন দাইজ আল খলিফা, কাতারের রাজ পরিবারের সদস্য শেখ হামাদ বিন খালিদ এইচ এ আল থানি, সৌদি রাজ পরিবারের সদস্য এসাম আব্দুল্লাহ ও লেবাননের রাষ্ট্রদূত মিশেল এল খাউরি।

দুটি চার্টাট বিমানে করে থিরুবানাখথপুরাম বিমানবন্দরে ইতিমধ্যে এসব অতিথিকে অভ্যর্থনা জানানো হয়েছে। অন্যান্য দেশের আরো অতিথি বিশেষ বিমানে করে বিমানবন্দরে নামার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

বিয়ের অনুষ্ঠান ঘিরে নিরাপত্তাবলয় তৈরি করা হয়েছে। ২৫০ জন পুলিশ ছাড়াও ৩৫০ জন ব্যক্তিগত নিরাপত্তারক্ষী ভাড়া করা হয়েছে।

তথ্যসূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া অনলাইন।