মেইন ম্যেনু

৫৫ বছরের দাম্পত্যে একদিনও ঝগড়া করেননি তারা

ভারতের প্রথম বাঙালি রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায় দম্পতির ৫৫ বছরের দাম্পত্য জীবনে কখনও একে-অপরের প্রতি রুদ্রমূর্তি হননি। স্বামী দেশের শীর্ষ সাংবিধানিক পদে আসীন হওয়ার পর একথাই জানিয়েছিলেন ফার্স্ট লেডি শুভ্রা মুখোপাধ্যায়। সেই মুহূর্তটায় তিনি শেয়ার করেছিলেন তাঁর দাম্পত্য জীবনের ছোট-খাটো নানা অভিজ্ঞতা। প্রণব পত্নির প্রয়াণের দিনে ফিরে যাক তাঁর নানা অনুভূতিকে।

প্রশ্ন: প্রণব মুখোপাধ্যায় প্রথম বাঙালি রাষ্ট্রপতি। আপনি কি তাঁকে অভিনন্দন জানাতে চাইবেন?

শুভ্রা মুখোপাধ্যায়: না, না। আমরা আজকালকার দম্পতিদের মতো নই। ভালোবাসায় গদগদ সম্পর্ক আমাদের নয়। আমরা এত স্পষ্টভাবে আমাদের আবেগ প্রকাশ করি না। এই বয়সে সম্পর্কটা হলো পুরোপুরি একে-অপরের প্রতি নির্ভরশীলতার সম্পর্ক। আমার প্রতি ওঁর ভালোবাসা একেবারে আলাদা।

প্রতিদিন গোসলের পর উনি আমার কাছে এসে আমার কপালে হাত দিয়ে মন্ত্র পড়েন। বছরের পর বছর ধরে উনি এটা করে আসছেন। গতকালও তার অন্যথা হয়নি। উনি ওঁর ভালোবাসা প্রকাশ করেন এভাবেই। আমাদের বিয়ে হয়ে গেছে ৫৫ বছর হল। এখনও পর্যন্ত একদিনের জন্যও আমাদের মধ্যে কোনও লড়াই-ঝগড়া হয়নি।

প্রশ্ন: এই দিনে তাঁর জন্য বিশেষ কোনও উপহারৃ

শুভ্রা মুখোপাধ্যায়: ভালোবাসা ছাড়া আর কিই বা দিতে পারিৃ

প্রশ্ন: আপনি কি উনার দেওয়া কোনও নতুন শাড়ি পরেছিলেন?

শুভ্রা মুখোপাধ্যায়: আমি কেন নতুন শাড়ি পরব? বছরের বাকি দিনগুলোয় আমি যেরকম শাড়ি পরি, সেরকমই পরেছিলাম। বিশেষ কোনওটা নয়। আর উনি আমাকে কখনও শাড়ি দেননি। উনি সবার থেকে আলাদা। উনি কাজপাগল, কাজই ওঁর জীবন। কাজ ছাড়াও উনি একজন বইপাগলও। সারাক্ষণ বইয়ের পাতায় ডুবে থাকেন।

প্রশ্ন: এই বিশেষ দিনে ওর জন্য বিশেষ কোনও খাবার বানিয়েছিলেন?

শুভ্রা মুখোপাধ্যায়: ওঁর পছন্দের খাবারগুলি আমি নিজে রান্না করতে খুব ভালোবাসি। কিন্তু, এখন আর শরীর সায় দেয় না। কিন্তু, উনি আলু পোস্ত আর ঝিঙে পোস্ত খেতে ভালোবাসেন। এইসব কিছুই রান্না করিয়েছি।

প্রশ্ন: রাষ্ট্রপতিভবনে আপনাদের ঘরগুলি কীভাবে সাজানো হবে, সেবিষয়ে ওঁর সঙ্গে কিছু আলোচনা করেছেন?

শুভ্রা মুখোপাধ্যায়: না, উনি এসবের থেকে শতহস্ত দূরে থাকেন। বাড়ির বিষয়ে যাবতীয় সিদ্ধান্ত আমিই নিই। যখন আমরা দিল্লি এসেছিলাম, তখন আমাদের সামান্য কিছু জিনিস ছিল। কিন্তু, এখন অনেক কিছু রয়েছে। দেখা যাক, সেগুলি কীভাবে কী করা যায়? আমার অত্যন্ত মূল্যবান দুটি জিনিস হল আমার হারমোনিয়াম ও তানপুরা। কোনও ঘরটায় মন্দির করব, সেটাও ঠিক করতে হবে।

প্রশ্ন: এই দিনটায় কাকে সবচেয়ে মিস করছিলেন?

শুভ্রা মুখোপাধ্যায়: আমি একটি ছেলেকে হারাই তার জন্মের পরই। আমি আজ সত্যিই ওকে খুব মিস করছি।

প্রশ্ন: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রথমে প্রণব মুখোপাধ্যায়কে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে সমর্থন দেননি, এবিষয়ে কী বলবেন?

শুভ্রা মুখোপাধ্যায়: আমি একেবারে অরাজনৈতিক। রাজনীতি থেকে আমি ১০লক্ষ ফিট দূরে থাকি। সূত্র: এই সময়



« (পূর্বের সংবাদ)